Home » চলচ্চিত্র » প্রসঙ্গঃ শাকিব খান, আরেফিন শুভ, অনন্ত জলিল
TIN-NAYOK

প্রসঙ্গঃ শাকিব খান, আরেফিন শুভ, অনন্ত জলিল

Share Button

মিডিয়া খবর :-         -: রং পেন্সিল :-

ইদানিংকালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমাদের তথা ঢাকাই চলচ্চিত্র নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। এটা সুখের বিষয় যে, বর্তমান তরুণ প্রজন্ম চলচ্চিত্র নিয়ে ভাবতে শুরু করেছেন। তবে দুঃখের বিষয় হলো এসব তরুণ চলচ্চিত্র নিয়ে ভাবে তবে সেটা একটি নির্দিষ্ট নায়ক কেন্দ্রিক। যার যার পছন্দের নায়ককে নিয়ে বিভিন্ন গ্রুপ/পেজে চলে টানা-হেঁচড়া। কারো মতে শাকিব খান সেরা,কারো মতে আরেফিন শুভ আবার কারো মতে অনন্ত জলিল সেরা। কে সেরা এ বিষয়ে আমি নিজস্ব কোন মতামত লিখতে চাই না। শুধু আলোচিত-সমালোচিত এই তিন নায়ককে নিয়ে দু’চার কলম লিখতে চাই। তবে শুরুতেই বলে রাখছি,আপনি যদি নিরপেক্ষ না হন তাহলে আমার এই লেখার কয়েকটি লাইন আপনার রাগের জন্ম দিতে পারে। যার ফলশ্রুতিতে আমাকে এক কোমর গালাগালিও দিবেন।

যাহোক,শাকিব খান এখন যে অবস্থানে সে অবস্থানে আসতে তাকে বেশ পরিশ্রম করতে হয়েছে। অপ্রিয় হলেও সত্য ঢাকাই চলচ্চিত্রের অশ্লীল যুগটা তার জন্য ছিলো টার্নিং পয়েন্ট। তখন সে বেশকিছু অশ্লীল এ্যাকশানধর্মী চলচ্চিত্রে অভিনয় করে একটি নির্দিষ্ট শ্রেণীর দর্শকদের মধ্যে জায়গা করে নেন। তারপর নায়ক মান্না’র মারা যাওয়া,রিয়াজসহ অন্য নায়কদের চলচ্চিত্র থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়া শাকিব খানের জন্য শুভ হিসেবে ধরা দিয়েছিলো। এক রকম ফাঁকা মাঠে গোল দিয়েছেন বলা যেতে পারে। তিনি যখন ফাঁকা মাঠে গোল দিলেন তখন দেশের চলচ্চিত্রের অবস্থা নড়বড়ে ছিলো। আর সেই সুযোগে তিনি ছবি প্রতি পারিশ্রমিক হাঁকালেন প্রায় ৪০ লাখ টাকার মতো। যে কারনে প্রযোজকরা চলচ্চিত্রের অন্যসব বাজেট কমিয়ে দিয়ে কোনমতে একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করে মুক্তি দিতেন। যার কাহিনীতে থাকতো উদ্ভট প্রেম, উচ্চস্বরের ডায়ালগ, দেহ দোলানো গান। যা উচ্চ শ্রেণীর দর্শকদের হল বিমুখ করার প্রধান কারন। চলচ্চিত্রের দূর্দিনে তার এমন পারিশ্রমিক হাঁকানো আদৌ ঠিক ছিলো কিনা তার ভেবে দেখা উচিত ছিলো।

কিন্তু হ্যাঁ, শাকিব খান এমন একজন নায়ক যাকে অনায়াসে বলিউডের নায়কদের সাথে তুলনা করা যায়। তার অভিনয় দক্ষতা প্রশংসার দাবী রাখে। চলচ্চিত্রে তার নাচের পারদর্শীতা চোখে পড়ার মতো। যদিও এখন তার স্বাস্থ্য বৃদ্ধির কারনে নাচের মুদ্রা গুলো বোঝা যায় না।

এদিকে আবার কেউ কেউ আরেফিন শুভকে শাকিব খানের সাথে তুলনা করেন। আরেফিন শুভকে এখনই শাকিব খানের সাথে তুলনা করাটা বোকামীর শামিল। শুভ এমন কিছুই করে দেখাতে পারেনি যে তাকে শাকিব খানের সাথে তুলনা করা যাবে। জাগো,ভালোবাসা জিন্দাবাদ,অগ্নী কোন চলচ্চিত্রেই নিজেকে প্রমাণ করতে পারেনি সে। আমার যতোটুকু মনে হয় সে অভিনয় থেকে শরীরটাকেই বেশী প্রাধান্য দেন। তিনি যদি শরীরের সাথে অভিনয়টা সমতায় আনতে পারেন তাহলে তার সুযোগ আছে শীর্ষ স্থানে যাওয়ার। এজন্য তাকে আরো সাধনা করতে হবে। শুভকে যখন শাকিব খানের মতো প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ চিনবে তখনই শুভ ভালো অবস্থানে পৌছাবে। তবে একথা সত্য আরেফিন শুভ তরুণ দর্শকদের হল মুখী করতে পেরেছে। এটা তার সফলতা বলা যেতে পারে। কিন্তু পর্দায় যদি তিনি এসব শিক্ষিত তরুণ দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হন তালে সেটা হবে তার চরম ব্যর্থতা।

অন্যদিকে এমন কিছু মানুষ আছে যাদের প্রচুর টাকা সত্ত্বেও মানুষ তাকে চেনে না। তারা চায় কোন এক উপায়ে নিজেকে চেনাতে হবে। সেজন্য এক এক জন এক এক পথ বেছে নেয়। এদের মধ্যে অনন্ত জলিল অন্যতম। তিনি নিজেকে চেনানোর পথ হিসেবে চলচ্চিত্রকে বেছে নিয়েছেন। এতে প্রাথমিকভাবে তিনি সফল হয়েছেন। টাকা দিয়ে তিনি নিজের নাম কিনতে ক্রমাগত মানহীন চলচ্চিত্র নির্মাণ করছেন। একই চলচ্চিত্রে তিনি প্রযোজক, পরিচালক, নায়ক থাকেন। নায়ক হিসেবে তিনি বোকার মতো নিজেকে টম ক্রুজের সাথে তুলনা করেন।  তবে এটা মানতে হবে ঢাকাই চলচ্চিত্রে তার কাছ থেকে প্রযোজকরা সাহসী ব্যায়বহুল চলচ্চিত্র নির্মাণের অনুপ্রেরণা পেয়েছেন।

আর কথা বাড়িয়ে আপনাদের ধৈর্য্যচ্যুত করবো না, সবশেষে শুধু এতোটুকু বলবো কোন নির্দিষ্ট নায়কের পক্ষ না নিয়ে সব নায়কের আলোচনা-সমালোচনা করুন। পক্ষপাতিত্ব, গ্রুপিং আমাদের চলচ্চিত্রের জন্য চরম হুমকি। ভক্ত হওয়া ভালো,তবে অন্ধ ভক্ত কখনোই হওয়া উচিত নয়।

Check Also

nuru miah o tar beauty driver

নুরু মিয়া ও তার বিউটি ড্রাইভার

মিডিয়া খবর :- গত ২৪ জানুয়ারি কোনও কর্তন ছাড়াই বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পায় …

tanha, shuva

ভাল থেকো চলচিত্রের পোস্টার প্রকাশ

মিডিয়া খবর:- প্রকাশ হল জাকির হোসেন রাজুর নির্মিতব্য চলচিত্রের পোস্টার। জাকির হোসেন রাজুর নির্মাণে আসছে নতুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares