Home » অনুষ্ঠান » এরা যুব সমাজের মডেল হয় কি করে?
fm

এরা যুব সমাজের মডেল হয় কি করে?

Share Button

মিডিয়া খবর:-  (ফেসবুক থেকে নেয়া)

-: ফজলে এলাহী পাপ্পু :-

একজন নুসরাত ফারিয়া, হট পিঙ্ক দিপা বা এফএম রেডিওগুলোর কিছু কিছু আরজেদের যদি আপনি আধুনিক শিক্ষিত তরুণ সমাজের মডেল হিসেবে ভাবেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই এই তরুণ সমাজ নিয়ে শংকিত হতে হবে । আপনি হয়তো বলবেন ঐ আরজে’রা সংখ্যায় খুবই নগণ্য এরা যুব সমাজের মডেল হয় কি করে? হ্যাঁ এরা সংখ্যায় নগণ্য কিন্তু এরপরেও এদেরকে আমি মডেল হিসেবে ধরতে বলছি কারন আপনার আমার একটি কথা মানুষের কাছে পৌঁছানোর আগে ঐ আরজেদের কথা খুব দ্রুত হাজার, লক্ষ মানুষের কাছে পৌছায়। হাজার, লক্ষ মানুষ ঐ আরজেদের কথা শুনছে যা আমার আপনার পক্ষে সম্ভব নয়। এখনকার উঠতি কিশোর/কিশোরী, তরুণ/তরুণীদের কাছে ঐ আরজেদের কথা বলার ধরন, পছন্দ / অপছন্দ সব কিছু বেশ গুরুত্ব পায়। কেউ কেউ আরজেদের নামে ফেইসবুক ফ্যান পেইজও চালায়। তাই এরা সংখ্যায় নগণ্য হলেও অনেক বেশি শক্তিশালি হয়ে উঠেছে যেখানে আমাদের কথা মূল্যহীন।
এবার আসা যাক কেন আপনাকে শংকিত হতে হবে সেই বিষয়ে। আপনি যদি নিয়মিত জনপ্রিয় আরজেদের অনুষ্ঠানগুলো শোনেন বা লক্ষ্য করেন তাহলে বুঝবেন ঐ শিক্ষিত আধুনিক আরজে শ্রেণী নামক কিছু তরুণ সমাজের মাঝে দেশাত্মবোধের বড়ই অভাব যা এরা ছড়িয়ে দিচ্ছে তাদের হাজারো শ্রোতা ও ভক্তদের মাঝে। একজন শিক্ষিত আরজে যখন বারবার ‘আচকে’, ’সবচে’ ভুল বাংলা বলে যাচ্ছে দিনের পর দিন তখন তাঁর শ্রোতা/ ভক্তরা মনে করছে সেটাই ঠিক আর এভাবে এরা নিজেদের মাঝেও ভুল বাংলায় কথা বলা রপ্ত করছে যা কখনই কারো কাম্য হতে পারেনা। একটি প্রচার মাধ্যমের শিক্ষিত কর্মীরা ভাষাবিকৃতি করে দিনের পর দিন কথা বলে যাবে তা হতে পারেনা। এটা আমাদের ভাষা বিপর্যয়ের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। আমাদের বর্তমান প্রজন্ম এক বিকৃত বাংলা ভাষায় কথা বলা আয়ত্ত করছে যা খুবই লজ্জাজনক। আপনি শিক্ষিত আধুনিক বলে আপনার মাতৃভাষাকে আপনি ইচ্ছেমতো বিকৃত করবেন সেই অধিকার আপনাকে কে দিয়েছে? তাও যদি বুঝতাম সেটা আপনার ব্যক্তিগত অভ্যাসে সীমাবদ্ধ আছে তাহলে কোন কথা ছিল না, কিন্তু তখনই প্রশ্ন উঠবে যখন আপনার ভুল ও বিকৃত ভাষার কথা হাজার হাজার মানুষ শুনছে। আপনার ভুল ও বিকৃত ভাষা আপনি সমাজে ভাইরাসের মতো ছড়িয়ে দিচ্ছেন যা আমাদের ভাষা শহীদ’দের অপমান। এরপর আছে দিনের পর দিন হিন্দি ও ইংরেজি গান নিয়ে মাতামাতি যা আমাদের শিল্প ও সংস্কৃতিতে আঘাত হানছে। হিন্দি গান নিয়ে ২ ঘণ্টার অনুষ্ঠান হয় আর আমাদের আরজে সেখানে হিন্দি ভাষায় কত ঢং করে, কত রুপে কথা বলে যা খুবই লজ্জাজনক। কারো মাঝে যদি দেশাত্মবোধ না থাকে তাহলে সে তাঁর দেশের ভাষা, শিল্প ও সংস্কৃতি’কে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখাতে পারে যা করে যাচ্ছে আমাদের এফএম রেডিও’র কিছু আরজে’রা। এবার নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন যে আমাদের আধুনিক তরুণ সমাজ কিভাবে দেশাত্মবোধহীনভাবে এগিয়ে চলছে যা আমাদের জন্য অবশ্যই অশুভ সংকেত। যে দেশের যুবসমাজের মধ্যে দেশাত্মবোধ থাকে না সেই যুব সমাজ দেশের জন্য কল্যাণকর কিছু করতে পারেনা। সময় এসেছে এখনই বিষয়টা ভেবে দেখার। আপনাকে যদি সত্যিকারের মানুষ হতে হয় তাহলে আপনার দেশ, আপনার মাটিকে ভালবাসতে হবে। এই দেশ এই মাটিকে অপমান করে আপনি হয়তো সাময়িক এগিয়ে যেতে পারেন কিন্তু একদিন দেখবেন সেই এগিয়ে যাওয়ার প্রাপ্তি শুন্য ।।

কবি ও কাব্যের মূল পোস্টটি দেয়া হল – https://www.facebook.com/Legendpappu/posts/10204936639961887

Check Also

5th-dec

৫ই ডিসেম্বর ১৯৭১

 মিডিয়া খবরঃ-        সাজেদুর রহমানঃ- ৫ই ডিসেম্বর ১৯৭১।   সকাল ৯ টায় মিত্রবাহিনীর …

4th-dec

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করল ভারতীয় স্থলবাহিনী

মিডিয়া খবরঃ-      সাজেদুর রহমানঃ- প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দিল্লী প্রত্যাবর্তন করেছেন গতকাল। রাতেই ডাকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares