Home » টিভি নাটক » চ্যানেলগুলো দর্শকদের জন্য নাটক বানায় না
tv chanel

চ্যানেলগুলো দর্শকদের জন্য নাটক বানায় না

Share Button

ঢাকা:-

-: আলিম আল রাজি :-

বাংলাদেশী যেকোনো চ্যানেলের যেকোনো একটা ধারাবাহিক নাটকের নাম বলতে পারবেন?
আমি বাজি ধরে বলতে পারি এই স্ট্যাটাসটি যারা পড়ছেন তাদের বেশিরভাগই কোনো নাটকের নাম বলতে পারবেন না।
কিন্তু নাটক কি কম হচ্ছে?
মোটেও না। আপনি সন্ধ্যার পরে টিভি খুলুন। আমাদের ২০/৩০ টি দেশি চ্যানেল আছে। দেখবেন প্রতিটা চ্যানেলে নাটক চলছে।
তাহলে এই বিপুল সংখ্যক নাটক আমাদের দর্শকদের আকৃষ্ট করতে পারছেনা কেন?
প্রধান কারণ হচ্ছে বিজ্ঞাপন। নাটকের মাঝখানে একবার বিজ্ঞাপন শুরু হলে মাশআল্লাহ আপনার আর নাটক দেখার ইচ্ছা থাকবেনা।
আধ ঘন্টায় ১০ মিনিট দেখানো হয় নাটক, বাকি ২০ মিনিট বিজ্ঞাপন। মানুষ টিভি দেখবে কেন?indian-ceerial
নাটকের দুই পর্বের মাঝখানে গ্যাপ থাকে এক সপ্তাহ। এক সপ্তাহে মানুষ প্রিয়জনের মৃত্যুশোকই ভুলে যায়রে ভাই। কোথাকার কোন নাটকের কিছু চরিত্র আর গল্পের কথা তাহলে মানুষ কেন মনে রাখবে?
১০ মিনিটের আরেকটা পর্বের জন্য ৭ দিন অপেক্ষা করারও তো মানে হয়না।
নাটকের বেশি কিছু আমি বুঝিনা তাই মান নিয়ে বেশি কথা বলবোনা।
তবে সত্যি কথা বলতে কী, বাংলাদেশের বেশিরভাগ নাটকই আমার কাছে একইরকম মনে হয়।
‘গ্রামের নাটক’ নামে অদ্ভুত একটা ট্রেন্ড চলছে কয়েক বছর ধরে। পাবনার ভাষায় তৈরি হয় এই ঘরানার সব নাটক।
উল্লেখ্য, এগুলো সব হচ্ছে ‘হাসির নাটক’। সম্ভবত আমারই সমস্যা। আজ পর্যন্ত এসব নাটক আমাকে একটুও হাসাতে পারেনি। অভিনেতা অভিনেত্রীর বিচিত্র ভঙ্গিতে কথা বলা আর অঙ্গভঙ্গী দেখে বিরক্তি লেগেছে বরং।
শহুরে গল্পের নাটকেও একই ঘটনা।

পরিবারের বড় ছেলে ঘুম থেকে উঠছেন… বউ তার টাই ঠিক করে দিচ্ছেন… ডায়নিং টেবিলে নাস্তা করতে বসছেন সবাই… পরিবারের ছোট ছেলে ইউনিভার্সিটিতে পড়ছে… তার একটা প্রেমিকা আছে… ঘুরে ফিরে সব গল্প এক।
মোটকথা হচ্ছে, আমাদের চ্যানে
star-jলগুলো দর্শকদের জন্য নাটক বানায় না। তারা বানায় বিজ্ঞাপনওয়ালাদের জন্য। একারণে দর্শক চলে যাচ্ছেন ভারতীয় চ্যানেলে।
ভারতের সিরিয়ালগুলো মান আহামরী কিছুনা। তাহলে সেগুলোতে কী এমন আছে?
বাংলাদেশের নাটকে যা নেই তাদের নাটকে তার সবকিছু আছে।
দুটো নাটকের মাঝে বিজ্ঞাপন থাকেনা, মাঝখানে বিজ্ঞাপন শুরু হওয়ার আগে দেখানো হয় বিজ্ঞাপনের পরে কী থাকছে, সপ্তাহে পাঁচদিনই দেখানো হয় নাটক, মিস হলে অসুবিধা নেই দিনের বেলা পুনঃপ্রচার হবে আবার।
আপনি গল্প মিস করবেন তার উপায় কোথায়? আপনাকে নাটক দেখিয়েই ছাড়বে তারা।
সবচেয়ে বড় কথা তাদের নাটকে ক্লাইমেক্স থাকে যেটা ‘পাবলিক খায়’।

শুনেছিলাম বাংলাদেশের নাটকে নতুন কিছু করার চেষ্টা করা হচ্ছে। সেই ‘নতুন কিছু’টা কী সেটা জানার পর আগ্রহ মিটে গেছে।
আমার এক বন্ধু কিছুদিন আগে প্রচারের অপেক্ষায় থাকা একটা চ্যানেলে ইন্টারভিউ দিতে গিয়েছিলো। সেখানে বলা হয়েছিলো, ‘আপনাদের একটাই কাজ। সেটা হলো জিবাংলা স্টাইলে নাটকের স্ক্রিপ্ট লেখা। ক্রিয়েটিভিটি দেখাতে যাবেন না। জাস্ট তাদের মতো করে লিখবেন।’
এই যদি হয় ‘নতুন কিছু’ তাহলে আমরা ধরে নিতে পারি যে, নিকট ভবিষ্যতে আমরা ভালো কিছু পাচ্ছিনা। অনুকরণ করে আর যাই হোক পরিবর্তন আসবেনা। (তারপরেও যারা আশাবাদী তারা এশিয়ান টিভির সিরিয়ালগুলো চেক করতে পারেন।)

আমরা কি মৌলিক আইডিয়ার ভালো কিছু করিনি?
পরিবর্তনের অঙ্গিকার নিয়ে এসে একুশে টিভি প্রথমবার ঠিকই দেখিয়েছিলো যে ভালো কিছু করা সম্ভব। সেই একুশে নেই কিন্তু মানুষগুলো তো আছেন!
তাদেরকে ব্যবহার করতে দোষ কোথায়?
চ্যানেলগুলো নিজেরা লাইনে আসবেনা। দরকার সরকারী নীতিমালা। বিজ্ঞাপনের দাম বাড়িয়ে অনুষ্ঠান এবং বিজ্ঞাপনের রেশিওটা ঠিক করে দিয়ে একটা স্টেপ নিতে পারে সরকার। আমাদের তথ্য মন্ত্রনালয় যথেষ্ট স্মার্ট। আমার ধারণা, তারা এগিয়ে আসলে চ্যানেলগুলোর লাইনে আসতে সময় লাগবেনা।
ভারতীয় চ্যানেল নিষিদ্ধ করা হচ্ছে – এরকম একটা গুঞ্জন শুনছি। খবরটা সঠিক কিনা নিশ্চিত না এখনো। তবে সত্যি কথা বলতে কী, আমি এখনই এই সিদ্ধান্তের পক্ষপাতি না।
স্বীকার করুন বা না করুন, আমাদের স্বজনদের একটা বড় অংশের বিনোদনের একমাত্র মাধ্যম এখন এই সিরিয়ালগুলো। কর্মক্লান্ত দিন শেষে তারা ঐ চ্যানেলগুলো খুলে বসেন একটু বিনোদনের আশায়।
দোষটা তাদের না। আপনি তাদের বিনোদন নিশ্চিত করতে পারেন নি বলেই তারা ভারতীয় সিরিয়ালে ঝুকেছেন। এখন দেশী বিনোদন নিশ্চিত না করেই তাদের বিনোদনের উৎস আপনি কেড়ে নিচ্ছেন, এটা কেমন কথা?

দেশী চ্যানেলগুলোকে ঠিক করুন, তারপর ভারতীয় চ্যানেল বন্ধ করুন। বড় একটা স্যালুট দেবো সরকারকে। তার আগে না। সরি।

(লেখাটা আলিম আল রাজির  ফেসবুক থেকে নেয়া)

Check Also

oishi-ashik

ঐশী ও আশিক গাইবেন আজ

মিডিয়া খবর:- জনপ্রিয় কন্ঠশিল্পী ঐশী ও আশিক সরাসরি গাইবেন বৈশাখী টেলিভিশনে। ৬ জানুয়ারি শুক্রবার রাত ১১টায় বৈশাখী টেলিভিশনের …

faria-sahrin-irfan-sazzad

ফারিয়ার বাকরখানি প্রেম

মিডিয়া খবর:- ফারিয়া শাহরিন অভিনয় ছেড়ে গত বছরের শুরুর দিকে দুই বছরের জন্য মিডিয়া মার্কেটিং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares