Home » সোশ্যাল মিডিয়া » সংবাদপত্রে ৪ বছর

সংবাদপত্রে ৪ বছর

Share Button

লিমন আহমেদ

-আমি মারা গেছি। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের মতো কোন একটা সংগঠনের তত্বাবধানে আমার মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয়েছে ঢাকা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে। সর্বস্তরের লোকজন এসেছে প্রিয় মানুষটিকে শেষ বিদায়ের আগে ফুল দিতে, শুভেচ্ছা জানাতে। রাষ্ট্রের নানা পর্যায়ের ব্যাক্তিরাও সামিল হয়েছেন গুণী মানুষটির প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদনে। টাকা-পয়সা, প্রভাব প্রতিপত্তি নয়; এই স্বপ্নটাই সবসময়ই তাড়া কর ফিরত আমাকে। মাঝে মাঝে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে হাসির খোরাক হতাম। তবু স্বপ্ন বেঁচে থাকত বুকের বাম পাশে। সে থেকেই মিডিয়াতে কাজ করার আগ্রহ। শুরু হলো নাটক আর গান লিখার চেষ্টা। একটা সময় দেখা গেল আমার লিখা গান আমার বন্ধু আর পরিচিতজনদের কাছে বেশ প্রশংসা পাচ্ছে। সাহস বেড়ে গেল। তখন ঢাকায় থাকি। হুমায়ূন আহমেদের বই বের করা প্রকাশনী অন্যপ্রকাশের অঙ্গ সংগঠন দেশি পোশাকের হাউস অন্যমেলাতে চাকরি করি। হঠাৎ চাকরিটা ছেড়ে দিলাম। মানিক নামের এক পরিচিত ভাই ছিলো এলাকার। তিনি অন্যমেলাতেই কাজ করতেন। আমার লেখলেখির আগ্রহ জেনে ২০১০ সালের ৬ মার্চ নিয়ে গেলেন দৈনিক ইত্তেফাকের ফিচার সম্পাদক মোর্শেদ নাসির টিটু ভাইয়ের কাছে। সব শুনে জিজ্ঞেস করলেন ফিচার লিখতে পারি কিনা। বললাম, একটা এসাইনমেন্ট দিয়ে দেখুন। দিলেন। তারুণ্যের কাছে মহান ৭ মার্চের গুরুত্ব, আবেদন নিয়ে একটা ফিচার তৈরি করতে বললেন। পরদিন তা তৈরি করে নিয়ে যাই। পছন্দই হয়েছিলো মনে হয়। ১১ তারিখ অফার করলেন কন্ট্রিবিউটর হিসেবে কাজ করতে। ১২ মার্চ শুরু হলো সাংবাদিকতার। জীবনের প্রথমদিন সাক্ষাতকার নিলাম ছোট পর্দার অভিনেত্রী (আমারও খুব প্রিয়) রিচি সোলায়মান আর তখনকার উদীয়মান কন্ঠশিল্পী ‘ও সোনা বউ শুনছ নি গো’ গান খ্যাত কাজী শুভ’র।
সেই থেকে শুরু। চলছে অদ্যাবধি। হয়েছে জায়গা বদল। বৈরী পরিবেশে ২০১১ সালের অক্টোবরে ইত্তেফাক ছেড়ে দিয়েছিলাম। এলাম একসময় ইত্তেফাকেরই সহযোগী ম্যাগাজিন পাক্ষিক বিনোদন-এ। মাথার উপর Rudra Mahfuz ভাই। উনি আমার দুই মাস আগে ইত্তেফাক ছেড়ে বিনোদনের সম্পাদনার দায়িত্ব নিয়েছিলেন। আমার সাংবাদিকতার পথ চলায় এই মানুষের অবদান আমি বলে শেষ করতে পারব না। আমি তাকে বস বলি না, ভাই বলি। ভাইকে যদি ভাই বলা যায় কেন খামোকা তাকে বস বলব। আমি তাদের বস বলি যাদের আমি পছন্দ করি না। মাহফুজ ভাইয়ের অনুমতি নিয়েই আরেকটু ভালো থাকার আশায় ২০১৩ সালের ২২ এপ্রিল পাড়ি দিলাম অনলাইন নিউজ পোর্টাল risingbd.com – এ। সেখানে পেলাম Milton Ahmed, Kafi Aman, Anu MostafaUday Hakim সাহেবদের মতো মানুষদের। এনাদেরকেও আমি ভাই বলি। তাদের সান্নিধ্যে নিজেকে সমৃদ্ধ করেছি, ধন্য করেছি। কিছু বিষয়ে নিজেকে খাপ খাওযাতে না পারায় আবারও চলে এলাম পাক্ষিক বিনোদনে। চলতি মাসের ৪ তারিখ থেকে।
কর্মজীবনের এই ছোট্ট পরিসরে যারা ভালোবেসেছেন তাদের সংখ্যা অজানা। মিডিয়ার বাইরে-ভেতরে অসংখ্য মানুষের স্নেহধন্য হয়েছি, ভালোবাসা পেয়েছি, বন্ধুত্ব পেয়েছি। তাদের সকলকে জানাই কৃতজ্ঞতা। আমার সহকর্মী ভাই-বন্ধুদের প্রতি জানাই অনুরোধ-বরাবরের মতো আগামীতেও সবসময় পাশেই থাকবেন।
বহু চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে দেখতে দেখতে চলে গেল চারটি বছর। এ কয়দিনে সাংবাদিকতা যেমন শিখেছি অসাংবাদিকতাও শিখেছি। মানুষ দেখেছি-যাদের সৌন্দর্য আর উদারতায় নত হয়েছে মস্তক। অমানুষ দেখেছি-যাদের মতো নিকৃষ্ট, জঘন্য, দৃর্বল চরিত্রের মানুষ এ সমাজে এতা এতা সম্মান নিয়ে বাস করে ভাবলেই একজন মানুষ হিসেবে আমার বমি আসে। অনেক পেয়েছি, হারিয়েওছি বেশ। মিডিয়ায় নানা আঙ্গিনার খ্যাতিমান, সর্বজন শ্রদ্ধেয় অসংখ্য শিল্পী, সাহিত্যিক-রাজনীতিবিদসহ সমাজের অনেক বড় মাপের মানুষদের সান্নিধ্যে গিয়ে ধন্য হয়েছি। অভিজ্ঞতার ঝুলিটা বড় হয়েছে ভালো মন্দ মিলিয়েই। তবে অবাক হয়ে লক্ষ্য করছি, মৃত্যুর পর শেষযাত্রার আগে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি নেবার স্বপ্নটা আমার ক্রমশই মরে যাচ্ছে। সাংবাদিকতার সে দিন আর নেই। খাই খাই কিছু মানুষেরা আজ এই পেশাটাকে বিভক্ত করেছেন, বিব্রত করেছেন, বিরক্তিকর করেছেন। বারবার মনে হয়-চারপাশে তেলামী, আতলামি, নষ্টামী আর ভন্ডামীর বেড়াজাল ভেঙ্গে আমি মহামানব হতে পারব না। এতোটা ক্ষমতা আমাকে দেওয়া হয়নি। প্রকৃতি আমার ভাগ্যের এতো সম্মান চায় না। আজ সাংবাদিকতায় মানুষ হয়ে টিকে থাকাটাই আমার লক্ষ্য…

( সামাজিক যোগাযোগ সা্টি ফেসবুক থেকে নেয়া, https://www.facebook.com/limon.ahmed.92?hc_location=timeline)

Check Also

mahi

বন্ধ জাজের ইউটিউব চ্যানেল

মিডিয়া খবর:- বাংলাদেশের অন্যতম বড় প্রযোজনা সংস্থা জাজ মাল্টিমিডিয়ার ইউটিউব চ্যানেল কপিরাইট জটিলতায় বন্ধ হলো। …

messenger video call

বাংলাদেশেও ফেসবুক অ্যাপস্ মেসেঞ্জারে ভয়েস-ভিডিও কল

মিডিয়া খবর:- বাংলাদেশের গ্রাহকরা এখন থেকে ফেসবুকের টেক্সট মেসেজিং অ্যাপস্ মেসেঞ্জার ব্যবহার করে ভয়েস এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares