Home » ইভেন্ট » স্টাইলিশ হেয়ার অব দ্য ক্যাম্পাস মুকুট রিমির
mediakhabor,-sera

স্টাইলিশ হেয়ার অব দ্য ক্যাম্পাস মুকুট রিমির

Share Button

ঢাকা:-

স্টাইলিশ হেয়ার অব দ্য ক্যাম্পাস’ প্রতিযোগিতায় ৩ লাখ তরুণীর মধ্যে বিজয় মুকুট জিতেছেন ময়মনসিংহের তরুণী রোকেয়া রাশেদ রিমি। পুরস্কার হিসেবে তিনি পেয়েছেন ৩ লাখ টাকা। এ ছাড়া ময়মনসিংহ সরকারি মহিলা কলেজের এই শিক্ষার্থীর কাছে এসেছে গাজী টিভিতে ঈদের নাটকে অভিনয়ের সুযোগ।

২৫ জুন রাতে রাজধানীর হোটেল র‌্যাডিসনে জমকালো আয়োজনে অনুষ্ঠিত ‘স্টাইলিশ হেয়ার অব দ্য ক্যাম্পাস’ প্রতিযোগিতার এই বর্ণিল আয়োজন। এর আয়োজন করেছে প্যারাস্যুট অ্যাডভান্সড পণ্য বেলীফুল।

প্রতিযোগিতায় প্রথম রানারআপ হয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলার বিভাগের শিক্ষার্থী অতশী আমিন। তিনি পেলেন ২ লাখ টাকা। দ্বিতীয় রানারআপের ১ লাখ টাকা পুরস্কার পেয়েছেন ময়মনসিংহ মহিলা ডিগ্রি কলেজের রুবাইয়া কবির রায়না। রিমির মতো এ দু’জনও পাচ্ছেন নাটকে অভিনয় করার সুযোগ। 

সেরা স্টাইলিশ হেয়ারের তকমা পেয়েছেন নাটোরের রানী ভবানি কলেজ পড়–য়া আইরিন সুলতানা। তার কাছে গেছে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার। এ ছাড়া রেডিও টুডের আরজে হিসেবে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছেন শীর্ষ এগারোতে স্থান পাওয়া রেনেসা খান। বাকি ৮ জন পেয়েছেন ২৫ হাজার টাকার পুরস্কার।  

বর্ণিল এই অনুষ্ঠানে প্রতিযোগিতার থিম সং পরিবেশন করেন এলিটা ও কিশোর। এ ছাড়া গান গেয়েছেণ কনা। নৃত্য পরিবেশন করেন শখ এবং তানজিলের ঈগল ড্যান্স গ্রুপ। অভিনেতা সাজু খাদেমের হাস্যরসধর্মী পরিবেশনা আনন্দ দিয়েছে আমন্ত্রিত অতিথিদের। রেডিও টুডের দুই কথাবন্ধুর অংশগ্রহণও ছিল আনন্দদায়ক। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেছেন নুসরাত ফারিয়া। 

দেশের সাত বিভাগের ৩০০টি ক্যাম্পাস এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছে। সব মিলিয়ে নাম নিবন্ধন করেছিল ৩ লাখ তরুণী। তাদের মধ্য থেকে সেরা ১১ প্রতিযোগীকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হলো চ‚ড়ান্ত পর্ব। এদিন তিন বিচারক হিসেবে ছিলেন অভিনেতা-নির্মাতা জাহিদ হাসান, রূপ বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন ও নির্মাতা রেদওয়ান রনি। চূড়ান্ত পর্বে ১১ জন প্রতিযোগীর মধ্য থেকে বিচারকরা নাচ, অভিনয় এবং র‌্যাম্প পরিবেশনার ওপর ভিত্তি করে বাছাই করে নেন সেরা তিনজনকে। অনুষ্ঠানটি গাজী টিভি ২৬ জুন রাত ৮টা থেকে প্রচার হচ্ছে। 

‘স্টাইলিশ হেয়ার অফ দ্য ক্যাম্পাস’ শুরু হয় গত বছরের সেপ্টেম্বরে। আয়োজকরা অনুষ্ঠানে জানান, দেশের প্রতিভাবান মেয়েদের জন্য নিজেদের প্রতিভা দেখানো ও তাদের স্বপ্নপূরণের প্ল্যাটফর্ম তৈরিই এর লক্ষ্য।

প্রাথমিক পর্যায়ে ২০ হাজার মেয়ে এবং পরে আলোকচিত্র ও পোর্টফলিও তৈরির জন্য বাছাই করে হয় ২ হাজার মেয়েকে। ১০ জুন তাদের মধ্য থেকে বিচারকমন্ডলী বাছাই করে নেন ১০০ জনকে। ১৩ ও ১৪ জুন নানা পরিবেশনা যাচাই করে নির্বাচন করা হয় সেরা ২১ জনকে। এই ২১ জনের আবাসিক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু হয় ১৬ জুন। এগুলো পরিচালনা করেন দেশের স্বনামধন্য প্রশিক্ষকগণ। ১৯ জুন বেছে নেওয়া হয় শীর্ষ ১১ জনকে।  এই উদ্যোগের মিডিয়া পার্টনার জিটিভি, রেডিও টুডে এবং জনসংযোগ পার্টনার মাস্টহেড পিআর।

Check Also

khilkhil kazia

খিলখিল কাজীর আবৃত্তি ও সঙ্গীতসন্ধ্যা আজ

মিডিয়া খবর :- ইন্দিরা গান্ধী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র (আইজিসিসি) আজ শুক্রবার কাজী নজরুল ইসলামের ১১৭তম জন্মজয়ন্তী …

ganmela

সংগীতশিল্পী সোসাইটির সংগীতমেলা ২০১৬

মিডিয়া খবর:- আজ ২৩ এপ্রিল বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি মাঠে সম্মিলিত সংগীতশিল্পী সোসাইটির উদ্যোগে শুরু হচ্ছে ‘সংগীতমেলা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares