Home » ইভেন্ট » দুবলারচরে রাসমেলা : সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য রক্ষার দাবি
rash-mela

দুবলারচরে রাসমেলা : সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য রক্ষার দাবি

Share Button

মিডিয়া খবর :-

এবছর বসবে ১৩২ তম রাসমেলা।  দুবলারচরেই প্রতি বছর কার্তিক মাসের পূর্ণিমা রাতে অনুষ্ঠিত হয় রাসমেলা। অসংখ্য সনাতন ধর্মাবলম্বী অংশ নেন এ মেলায়। ইতিহাসের পাতা থেকে জানা যায়, ১৯২৩ সালে হরিচাঁদ ঠাকুরের বনবাসী ভক্ত হরিভজন এ মেলা শুরু করেন। আবার কেউ কেউ মনে করেন, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দেবতা শ্রীকৃষ্ণ শত বছর আগে কার্তিকের পূর্ণিমা রাতে পাপমোচন ও পুণ্যলাভের আশায় গঙ্গাস্নানের জন্য স্বপ্নে আদেশ পান। তখন থেকেই এ মেলার শুরু। আবার অনেকে মনে করেন, শ্রীকৃষ্ণ বনবাসী গোপীদের সঙ্গে রাসলীলা করেছিলেন এ কার্তিকের পূর্ণিমা রাতে। সে উপলক্ষেই এ মেলা। তবে ইতিহাস যা-ই হোক, এখন দুবলারচরের রাসমেলা সার্বজনীন উৎসব। সনাতন ধর্মালম্বীদের পাশাপাশি উৎসব দেখতে আসেন অসংখ্য দেশি-বিদেশি পর্যটক। এ উপলক্ষে এখানে গ্রামীণ মেলাও বসে।

রাস মেলার মূল আনুষ্ঠানিকতা হলো ভোরে সাগরের প্রথম জোয়ারের পানিতে স্নান করা। তার জন্য সূর্য ওঠার আগেই সনাতনধর্মীরা সাগরের পাড়ে বসে যান প্রার্থনা করতে। তারপর সূর্য ওঠার পর যথন জোয়ার শুরু হয় এবং সে পানি পুণ্যার্থীদের গায়ে এসে লাগে, তখনই পুণ্যার্থীরা নেমে যান সাগরে স্নান করতে। এ স্নানের মাধ্যমে তাদের সব পাপ ধুয়ে-মুছে সাগরে মিশে যায় এবং তারা পুণ্যবান হন।

রাসমেলা সামনে রেখে একশ্রেণির অসাধু লোক সুন্দরবনে ঢুকে বাঘ ও হরিণ শিকার, গাছ কাটাসহ বিভিন্ন অপরাধ করে। তাই এ মেলাকে কেন্দ্র করে কোনোভাবেই যেন জীববৈচিত্র্য নষ্ট না হয়, সেদিকে বন বিভাগের নজরদারি বাড়াতে হবে।
গতকাল সোমবার সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগীয় কর্মকর্তার সঙ্গে মতবিনিময় সভায় খুলনার সচেতন নাগরিক সমাজ এসব কথা বলেন। মহানগরের জেলখানাঘাট এলাকায় সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগীয় কর্মকর্তা জহির উদ্দিন আহমেদের কক্ষে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন জন-উদ্যোগ এই সভার আয়োজন করে।
আজ মঙ্গলবার থেকে সুন্দরবনের দুবলারচরে ঐতিহ্যবাহী রাস পূর্ণিমা পুণ্যস্নান শুরু হচ্ছে। শেষ হবে বৃহস্পতিবার।
বক্তারা বলেন, সুন্দরবনের অনেক জীববৈচিত্র্য ইতিমধ্যে হারিয়ে গেছে। অনেক সুন্দরী গাছ রোগাক্রান্ত, বিলুপ্তির পথে বিভিন্ন প্রজাতির পাখি, সরীসৃপ ও স্তন্যপায়ী প্রাণী। রাসমেলার সময় জীববৈচিত্র্য নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা থাকে। দুবলারচরে রাসমেলায় অতিরিক্ত সাজসজ্জা করা হয়। উচ্চস্বরে গান বাজানো হয়; যা বন আইন লঙ্ঘনের শামিল ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। রাসমেলা কেন্দ্র করে অসাধু শিকারিরা যাতে বনের ক্ষতি করতে না পারে সে জন্য র‌্যাব, কোস্টগার্ড ও বনপ্রহরীদের আরও সজাগ থাকতে আহবান জানান তারা।
সভায় সুন্দরবনে মেলা উপলক্ষে প্রবেশের নির্ধারিত তারিখ থেকে ফিশারম্যান গ্রুপের নৌযানসহ প্রতিটি নৌকায় দর্শনার্থীদের জনপ্রতি পাস থাকা, তল্লাশিচৌকি থেকে ফিশারম্যান গ্রুপসহ সবার কাছ থেকে রাজস্ব আদায় করা, প্রতিটি নৌযান তল্লাশির আওতায় আনা, আলোকসজ্জা ও শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণ করাসহ আট দফা দাবি জানিয়ে বন কর্মকর্তার কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হয়।
সভায় সভাপতিত্ব করেন জন-উদ্যোগ, খুলনার আহবায়ক কুদরত-ই-খুদা। এতে বক্তব্য দেন আয়োজক সংগঠনের সদস্যসচিব মহেন্দ্র নাথ সেন, বাংলাদেশ মানবাধিকার সংস্থা খুলনার সমন্বয়কারী মোমিনুল ইসলাম, ব্লাস্টের সমন্বয়কারী অশোক কুমার সাহা প্রমুখ। দুবলারচর সুন্দরবনের মাঝে জেগে ওঠা বিচ্ছিন্ন একটি দ্বীপ বা চর। সাগরের কোলঘেঁষা এ চরের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে কুঙ্গা ও মরা পশুর নদী। সব সময় এ চরে লোকজন বসবাস করে না। তবে শীত মৌসুমে এ চরে অসংখ্য জেলে সম্প্রদায় বসবাস করে। তারা শীত মৌসুমজুড়ে এ চরের আশপাশের নদী-খাল ও সাগরে মাছ ধরে এবং তা দিয়ে শুঁটকি তৈরি করে। এজন্য দুবলারচরকে অনেকে শুঁটকি পল্লীও বলে।
(courtesy- daily prothom alo, jugantor n wikipedia)

Check Also

bangobondhu

স্বাধীনতা, এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো

মিডিয়া খবর :- স্বাধীনতা, এই শব্দটি কীভাবে আমাদের হলো – নির্মলেন্দু গুণ একটি কবিতা লেখা …

joybangla-consert

৭ মার্চ জয়বাংলা কনসার্টে ৭ ব্যান্ডদল গাইবে

মিডিয়া খবর :- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের দিনে এবারও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares