Home » নিউজ » ফেসবুকে বিয়ের খবর জানালেন তিন্নি

ফেসবুকে বিয়ের খবর জানালেন তিন্নি

Share Button

মিডিয়া খবর:-

ফেসবুকের মাধ্যমে বিয়ের খবর জানালেন তিন্নি। ফেসবুকে বিয়ের বিষয়টি নিয়ে একটা পোস্টও দিয়েছেন তিন্নি। সেখানে তিনি লেখেন, ‘আই গট ম্যারেড। অ্যান্ড হ্যাপিলি ম্যারেড টু মাই লাভ মিস্টার আদনান হুদা সাদ।’

নিজের দ্বিতীয় বিয়ের প্রসঙ্গে তিন্নি জানান, ‘বিয়েটা আমি ২০১৪ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি করেছি। এটা ছিল পুরোপুরি পরিবারের অমতে। আমার পরিবারও বিয়ের ব্যাপারটি মানতে রাজি ছিল না। তাই এ নিয়ে খুব একটা কথাও বলতে চাইনি। এখন অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে গেছে বিয়ের বিষয়টা। তাই ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যাপারটি আর গোপন রাখতে চাইলাম না।’

সাদ সম্পর্কে তিন্নি জানান, ‘বন্ধুমহল থেকেই সাদের সঙ্গে আমার পরিচয়। ২০১৩ সালে প্রথম আমি তাঁর সেন্ট্রাল রোডের বাসায় যাই। এরপর আমাদের নিয়মিত দেখা হতো। একটা দুজনের মধ্যে দারুণ একটা বোঝাপড়াও তৈরি হয়। আমি অবশ্য তখন মানসিকভাবে খুব খারাপ অবস্থায় ছিলাম। সাদ আমাকে খুব সাহস দিত। একটা সময় সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলি বিয়ে করার। দুজন মিলে ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে কাজটা সেরেও নিই। আমি মানসিকভাবে এখন অনেক খুশি।’

তিন্নির এটি দ্বিতীয় বিয়ে হলেও আদনানের প্রথম। তিন্নিকে স্ত্রী হিসেবে পেয়ে খুশি সাদও। সাদ জানান, ‘তিন্নিকে ভালো লাগত। একটা সময় ভালোবাসতে শুরু করি। এখন সে আমার জীবনসঙ্গী। খুবই ভালো লাগছে। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

উল্লেখ্য, তিন্নির সঙ্গে এর আগে অভিনেতা আদনান ফারুক হিল্লোলের বিয়ে হয়েছিল। একটা সময়ে দুজনের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। এর পর থেকে তিন্নি তাঁর মা ও একমাত্র মেয়ে ওয়ারিসাকে নিয়েই ছিলেন। তিন্নির সঙ্গে ছাড়াছাড়ির পর হিল্লোল বিয়ে করেন অভিনেত্রী নওশীনকে। দীর্ঘদিন অভিনয় থেকে দূরে থাকা তিন্নি এ বছরের সেপ্টেম্বর মাসে তাঁর মায়ের লেখা একটি নাটকের মাধ্যমে কাজে ফেরেন।

Check Also

চলচ্চিত্র পরিবার ও চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির মিলনমেলা

মিডিয়া খবর :- যৌথ প্রযোজনার নিয়ম না মেনে নির্মিত ‘নবাব’ ও ‘বস ২’ ছবি দুটির …

mayurponkhi

ময়ূরপঙ্খী ফিল্ম সোসাইটির মেম্বারশীপ সার্টিফিকেট প্রদান

মিডিয়া খবর:- সম্প্রতি ময়ূরপঙ্খী ফিল্ম সোসাইটির সদস্যদের মাঝে মেম্বারশীপ সার্টিফিকেট প্রদান করা হল। গ্রীন ইউনিভার্সিটির ফিল্ম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares