Home » নিউজ » বিশ্ব শিক্ষক দিবস
teachers-day

বিশ্ব শিক্ষক দিবস

Share Button

মিডিয়া খবর:-

একজন মানুষের জন্মের পর তার প্রাথমিক হাতেখড়ি পরিবারে হলেও মানুষকে প্রকৃত মানুষ হিসেবে তৈরি করতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানই গুরুদায়িত্ব পালন করে। এ কঠিন দায়িত্ব পালন করতে হয় শিক্ষককে। তা শিক্ষককে বলা হয় দ্বিতীয় জন্মদাতা। শিক্ষকরা যাতে ভবিষ্যত প্রজন্মের চাহিদা পূরণ করতে পারে তা নিশ্চিত করতেই ৫ অক্টোবর পালিত হয় ‘বিশ্ব শিক্ষক দিবস’।

দিবসটি পালনের উদ্দেশ্য- জাতীয় ও আঞ্চলিক পর্যায়ে শিক্ষাসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের শিক্ষকদের মর্যাদা ও মানসম্মত শিক্ষা বাস্তবায়নে শিক্ষকের গুরুত্ব সম্পর্কে অবহিত করা, মানসসম্মত শিক্ষা তথা সকল শিশুর জন্য প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিতকরণে শিক্ষকদের দায়িত্ব ও কর্তব্য সম্পর্কে আলোকপাত করা এবং প্রবীণ শিক্ষকদের অভিজ্ঞতাকে জানা ও কাজে লাগানো।

দিবসটি উপলক্ষে বছর সরকারিভাবে কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়নি তবে বিভিন্ন শিক্ষক সমিতি বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। এরমধ্যে রয়েছে আলোচনা সভা ও শোভাযাত্রা। 

বিশ্ব শিক্ষক দিবস ২০১৫ জাতীয় উদযাপন কমিটি সোমবার সকাল ১১টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শোভাযাত্রার আয়োজন করেছে। এরপর দুপুর ১২টায় কমিটির উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসি মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

এ ছাড়া ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটিতে সকাল ১১টায় ‘সমাজ বদলে শিক্ষক’ শীর্ষক আলোচনা সভার আয়োজন করেছে শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোট। এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী ড. এম ওসমান ফারুক।

দিবসটির পটভূমিতে জানা যায়, বিশ্বব্যাপী শিক্ষক ইউনিয়নসমূহের ফেডারেশন এডুকেশন ইন্টারন্যাশনাল (ইআই) ও এর ৪০১টি সংগঠন এ দিবসের ব্যাপক স্বীকৃতি অর্জনে ভূমিকা রেখেছে। এ সংগঠন শিক্ষা পেশার অবদানকে তুলে ধরে প্রতিবছর জনসচেতনতা মূলক প্রচার চালায়।

১৯৯৩ সালে প্যারিসে অনুষ্ঠিত ইউনেস্কোর ২৬তম অনুষ্ঠানে ৫ অক্টোবর দিনটিকে বিশ্ব শিক্ষক দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এরপর ১৯৯৪ সালে প্রথমবার দিবসটি পালন করা হয়।

ইউনেস্কোর মতে, শিক্ষা ও উন্নয়নে শিক্ষকরা বিশেষ ভূমিকা রাখছেন। মানুষের মধ্যে সচেতনতা, উপলব্ধি সৃষ্টি ও শিক্ষকদের ভূমিকার স্বীকৃতিস্মারক হিসেবে দিবসটি গুরুত্বপূর্ণ। মানবিক বিপর্যয় বা বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটে আক্রান্ত হয়েও সামাজিক, অর্থনৈতিক ও বুদ্ধিবৃত্তিক বিনির্মাণে শিক্ষকরা তাদের ভূমিকা রেখে চলেছেন।

Check Also

facebook

রাজি হল না ফেসবুক

মিডিয়া খবর :- বাংলাদেশ পুলিশের দেয়া সমঝোতা স্মারক সইয়ের এক প্রস্তাবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ রাজি হয়নি …

Shesh chal

সজল ও তাইয়্যাবা তাহসীন জুটির শেষ চাল

মিডিয়া খবরঃ-    -: সাজেদুর রহমানঃ- মায়ের হাত ধরে নতুন বাবার সংসারে এসেছে আদনান। কয়েকমাস পরে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares