Home » লাইফ স্টাইল » মিরপুর জাতীয় চিড়িয়াখানা
jiraf

মিরপুর জাতীয় চিড়িয়াখানা

Share Button

মিডিয়া খবর:-

১৯৫০ সালে হাইকোর্ট চত্ত্বরে জীবজন্তু প্রদর্শনের জন্য ঢাকা চিড়িয়াখানা স্থাপন করা হয়। বন্য প্রানী সংরক্ষণ, গবেষণা, শিক্ষা ও বিনোদনের উদ্দেশ্যে ঢাকা চিড়িয়াখানা প্রতিষ্ঠা করা হয়। ১৯৭১ সালে হাইকোর্ট চত্ত্বর থেকে মিরপুরে চিড়িয়াখানা স্থানান্তর করা হয়। মিরপুরের তুরাগ নদীর তীরে ১৮৬.৬০ একর জায়গার উপর ঢাকা চিড়িয়াখানা প্রতিষ্ঠিত হয়। দর্শণার্থীদের জন্য ১৯৭৪ইং সালে এটি উম্মুক্ত করা হয়। এখানে ১৬৫ প্রজাতীর মাংসাশী, তৃণভোজী, ক্ষুদ্র স্তন্যপায়ী, সরীসৃপ, পাখি ও  ফিস এ্যাকুরিয়ামের প্রাণী রয়েছে।

যোগাযোগ

ফোন: ০২- ৯০০২০২০

কিউরেটর অফিস: ৮০৩৫০৩৫, ৯০০২০২০, ৯০০২৭৩৮

জু হাসপাতাল: ০২- ৯০০৩২৫২

ফ্যাক্স: ০২- ৮০৩৫০৩৫

ই-মেইল: info@dhakazoo.org

ওয়েব: www.dhakazoo.org

খোলা-বন্ধের সময়সূচী

 

ঋতু

মাস

সময়

গ্রীষ্মকালীন ১ লা এপ্রিল থেকে ৩০ শে সে্প্টেম্বর সকাল ৯ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা
শীতকালীন ১লা অক্টোবর থেকে ৩১ শে মার্চ সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৫ টা
সাপ্তাহিক বন্ধ: ঢাকা চিড়িয়াখানা প্রতি রবিবার সাপ্তাহিক বন্ধ থাকে।

 

টিকেট মূল্য

  • এখানে প্রবেশ মূল্য ১০ টাকা।
  • প্রবেশ দ্বারে মোট ৪টি কাউন্টার রয়েছে।
  • এছাড়া প্রাণী যাদুঘরে প্রবেশ ফি প্রতিজন ২ টাকা, হাতি প্রমোদ আরোহন ৫ টাকা, ঘোড়া প্রমোদ আরোহন ৩ টাকা।
  • চিড়িয়াখানা কর্তৃকপক্ষ বরাবর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আবেদন করলে শিক্ষার্থী শিক্ষা সফরে ৫০% থেকে ১০০% পর্যন্ত ছাড় দেয়া হয়।
  • এতিম ও মানসিক, শারিরীক প্রতিবন্ধীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য ১০০% পর্যন্ত ছাড় দেয়া হয়।
  • ০ থেকে ২ বৎসরের বাচ্চাদের প্রবেশের ক্ষেত্রে টিকেট সংগ্রহ করতে হয় না।

 

প্রাণীর সংখ্যা

শাখার নাম

প্রজাতির সংখ্যা

প্রাণীর সংখ্যা

মাংসাশী

১০

৪৮

বৃহৎ প্রাণী (তৃণভোজী)

২২

১৫৯

ক্ষুদ্র স্তন্যপায়ী ও সরিসৃপ শাখা

৩৩

২৩৯

পাখি

৬১

১২১৭

ফিস এ্যাকুরিয়াম

২৩

৪১৯

 

হাতি ও ঘোড়ার পিঠে আরোহন

মাস

সকাল/ সরকারী ছুটির দিন

বিকাল

মূল্য

এপ্রিল-সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১২ টা বিকাল ৩ টা থেকে সন্ধ্য ৫ টা হাতি ৫ টাকাঘোড়া ৩ টাকা
অক্টোবর –মার্চ সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১২ টা দুপুর ২ টা থেকে বিকাল ৪ টা

 

ফিল্ম শুটিং

বিষয় খরচ (টাকা)
ফিল্ম শুটিং ১ ঘন্টা বা তার কম সময়ের জন্য ২০০ টাকা, কিন্তু এককালীন ১,৫০০ টাকার কম নয়
জীবজন্তু শুটিং (হাতি, ঘোড়া, গাধা, উট এবং চার পায়ের অন্যান্য জীবজন্তু) ১ ঘন্টা বা তার কম সময়ের জন্য ১০০ টাকা, কিন্তু এককালীন ১,০০০ টাকার কম নয়।
হিংস্র প্রানী শুটিং (বাঘ সিংহ, ভাল্লুক এবং এরকম হিংস্রপ্রাণী) ১ ঘন্টা বা তার কম সময়ের জন্য ১০০ টাকা, কিন্তু এককালীন ১,০০০ টাকার কম নয়।
খাচার প্রাণী শুটিং ১ ঘন্টা বা তার কম সময়ের জন্য ১০০ টাকা, কিন্তু এককালীন ১,০০০ টাকার কম নয়।
সাপ শুটিং ১ ঘন্টা বা তার কম সময়ের জন্য ১০০ টাকা, কিন্তু এককালীন ১,০০০ টাকার কম নয়।

 

মাছ ধরার খরচ

  • একজন লোক একজন সহকারীসহ তিনটি বড়শি দিয়ে মাছ শিকার করতে পারে।
  • সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত চিড়িয়াখানার লেকে মাছ ধরা যায়।
  • এজন্য জনপ্রতি ১,০০০ টাকা চার্জ দিতে হয়।

 

পিকনিক স্পট

  • উৎসব ও নিরিবিলি পিকনিক স্পট সারাদিন ব্যবহারের জন্য যথাক্রমে ২,০০০ টাকা ও ১,০০০ টাকা চার্জ দিতে হয়।

 

প্রাণী বিক্রয়

  • বর্তমানে চিড়িয়াখানা থেকে শুধুমাত্র চিহ্নিত হরিন বিক্রি করার অনুমতি রয়েছে। এধরনের হরিন বিক্রি করার অনুমতি দিয়ে থাকে বন বিভাগের প্রধান তত্ত্ববধায়ক। এধরনের প্রতিটি হরিনের মূল্য ১৫,০০০ টাকা।
  • এছাড়া কাঁঠাল ও অন্যান্য মৌসুমী ফল নিলামের মাধ্যমে বিক্রি করা হয়ে থাকে।

 

দর্শনার্থী করণীয়

  • প্রানীদের প্রতি দয়াশীল হতে হয়।
  • চিড়িয়াখানার কর্মচারীদের প্রতি সহযোগীতা মূলক আচরণ করতে হয়।
  • সূর্যাস্তের পূর্বে চিড়িয়াখানা ত্যাগ করতে হয়।
  • সঙ্গে আসা বাচ্চাদের নজরে রাখতে হয়।
  • চিড়িয়াখানার প্রানীদের কাছ থেকে বাচ্চাদের নিয়ে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করতে হয়।
  • প্রানীদের খাঁচায় বা ঘরে হাত বা কাপড় দিতে হয় না।
  •  চিড়িয়াখানার প্রানীদের খাবার দিতে হয় না।

 

যেসব প্রাণী রয়েছে

মিরপুর চিড়িয়াখানাতে সর্বমোট ২০০০ টি প্রাণী রয়েছে। প্রাণীগুলোর মধ্যে রয়েল বেঙ্গল টাইগার, এশীয় সিংহ, চিতা বাঘ, কালো ভাল্লুক, ভারতীয় সিংহ, হাতি, ঘোড়া, গরু, জলহস্তি, গন্ডার, হরিণ, বনরুই, ভাল্লুক, বানর, সিম্পাঞ্জি, জিরাফ, জেব্রা, মায়া হরিণ, চিত্রা হরিণ, রেসাস বানর, উল্লুক, অজগর, কুমির, সজারু, লোনা পানির কুমির, সংকনী সাপ, গোখরা সাপ, সবুজ কেড়া সাপ, সবুজ কচ্ছপ, মদন টাক, ময়না, টিয়া, বক, ময়ূর, চিল, শকুন, শালিক, টিয়া, এমু পাখি, উটপাখি, কানি বক, গো-বক, সাদা ময়ূর, ফ্লামিংগো, কাও ধনেশ, গোল্ড ফিস,  চিতল ফিস, ফালি ফিস, তিমির কঙ্কাল, ডলফিন এবং সৌল ফিস অন্যতম। এছাড়া চিড়িয়াখানার ভিতরে অতিথী পাখি ও মাছের জন্য ২টি লেক রয়েছে।

 

দর্শণার্থীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা

  • চিড়িয়াখানাতে দর্শণার্থীদের পশুপাখী দর্শণ ছাড়াও নিঝুম ও উৎসব নামে ২টি পিকনিক স্পট, শিশুদের খেলাধুলা ও বিনোদনের ১টি শিশুপার্ক, পুরুষ ও মহিলাদের জন্য আলাদা নামাজের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে।
  • এছাড়া এখানে একটি কেন্দ্রীয় মসজিদও রয়েছে ।

 

যাতায়াত

  • ঢাকা শহরের যেকোন জায়গা মিরপুর ১ নং সনি সিনেমা হল গোল চত্ত্বর থেকে যে রাস্তাটি উত্তর দিকে  গিয়েছে সেটি সরাসরি চিড়িয়াখানার দিকে গিয়েছে। সনি সিনেমা হল থেকে রিক্সা বা বাস যোগে চিড়িয়াখানায় যাওয়া যায়।

 

খাবার

  • ঢাকার মিরপুর চিড়িয়াখানায় ঈগল, পায়রা ও ময়না নামে তিনটি ফুড কোর্ট রয়েছে। এখানে প্রাপ্ত খাবারেরে মূল্য তালিকা:

 

খাবার

মূল্য (টাকা)

চিকেন বিরানী হাফ প্রতি প্লেট

৬০

ভুনা খিচুরী হাফ প্রতি প্লেট

৫০

তেহারী হাফ প্রতি প্লেট

৪০

চিকেন ঝাল ফ্রাই প্রতি প্লেট

৪০

নুডুলস হাফ প্রতি প্লেট

৩০

মিনারেল ওয়াটার ৫০০ এম.এল

১৫-২০

কোক, সেভেন আপ, স্প্রাইট ৫০০মি:

৩৫

চিকেন সান্ড্যুইচ

৫০

চিকেন প্যাটিস

৪০

চটপটি প্রতি প্লেট

৩৫

ফুসকা প্রতি প্লেট

৩০

 

তথ্য কেন্দ্র

চিড়িয়াখানার তথ্য কেন্দ্র থেকে সাধারণ দর্শণার্থীরা যেসব তথ্য বা সেবা পেয়ে থাকেন তা হলো

১। চিড়িয়াখানা সম্পর্কে কিছু জানার প্রয়োজন থাকলে।

২। বড়শি দ্বারা মাছ ধরা সম্পর্কে জানার প্রয়োজন থাকলে।

৩। তথ্য কেন্দ্রে জু গাইড পাওয়া যায়।

৪। বৃদ্ধ বা অচল মানুষের জন্য হুইল চেয়ারের ব্যবস্থা করা।

৫। পিকনিক সম্পর্কে কিছু জানার জন্য

৬। বাণিজ্যিক ভাবে কোন ছবি তোলা বা ভিডিও করার জন্য যোগাযোগ ।

৭। কারো বাচ্চা হারানো গেলে মাইকিং এর ব্যবস্থা।

৮। আপনার কিছু অভিযোগ থাকলে।

 

টয়লেট ব্যবস্থা

  • প্রধান ফটকের ভেতরে নারীর জন্য ৭টি এবং পুরুষের জন্য ৫টি টয়লেট রয়েছে।
  • টয়লেট ব্যবহারে খরচ পড়ে জনপ্রতি ৫ টাকা।
  • এছাড়া প্রাণী যাদুঘরের পাশে নারীর জন্য ৩টি, পুরুষের জন্য ৫টি, হাতি বা শিশু পার্কের পাশে নারীর জন্য ৮টি, পুরুষের জন্য ৮টি টয়লেট রয়েছে।

 

গাড়ি পার্কিং

  • প্রধান ফটকের সামনে প্রায় ৭০-৮০টি গাড়ি পার্কিং করার ব্যবস্থা রয়েছে এখানে মটর সাইকেল ১০ টাকা, রিক্সা ৫ টাকা, মটর কার ১৬০ টাকা, মিনি বাস ১৬০ টাকা, চেয়ার কোচ ২৫০-৪০০ টাকা, এবং ভলবো বাস ৩৫০-৬০০ টাকা।

 

নিরাপত্তা

  • এখানে নিরাপত্তার জন্য চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নিরাপত্তা কর্মী ছাড়াও পুলিশ ও র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়নের সদস্য নিয়োজিত রয়েছে।

(courtesy – onine_dhaka.com)

Check Also

morog polao

মোরগ পোলাও ঈদের খাবার মেন্যুতে

মিডিয়া খবর :- ঈদে খাবারের মেন্যুতে থাকা চাই বিশেষ কিছু। এবারের ঈদে খাবার মেন্যুতে রাখতে …

nehari

কেমন করে বানাবেন নেহারি

মিডিয়া খবর :- খাসি বা গরুর পায়ার খুবই মজাদার একটি রেসিপি হল নেহারি। সকালের নাস্তায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares