Home » সাহিত্য » উড়োচিঠি

উড়োচিঠি

Share Button

 মিডিয়া খবর :-       মোঃ জাহিদুল ইসলাম

প্রিয় নামহীন মরু প্রান্তর,

একটা কথা কি জানো যখন কেউ কাঁদে সেটা আবেগ কিন্তু কেউ কাউকে কাঁদিয়ে চলে যায় সেটা হচ্ছে ভালোবাসা। কেউ চলে গেলে তাকে হারানোর কষ্ট মুছে ফেলা যায় না জানো ? আমি তোমার হাত ধরে পিছু ডাকি নি, বলিনি কত্ত ভালোবাসা আছে তোমার জন্য ;কিংবা চোখের জল ফেলি নি তোমার সামনে। আর, গলা দিয়ে ছোট্ট কথাটাও কন্ঠনালী পর্যন্ত কিন্তু ঠোঁট পর্যন্ত এসে বের হয়নিঃ

‘ফিরে এসো,তোমার সব ভুল ক্ষমাযোগ্য, তোমার জন্য অপেক্ষমান আমি।’

বলেছিলাম তোমার সুখের জন্য সবকিছু ত্যাগ করতে পারি, কিন্তু তোমার সুখের
জন্য তোমাকেই ত্যাগ করতে হবে তা কখনো
ভাবিনি!!

তাইতো চলে এসেছি, বুকের পাঁজরে কষ্টগুলোকে রেখে, বলেছি ভালই আছি,, স্বপ্নহীন আর শূন্য জীবন নিয়ে বেচেঁ
আছি, বেচেঁ থাকার প্রয়োজনে,, শুধু রয়েছে
কিছু স্মৃতি আর অনূভুতিরা যা আজও আমাকে কাঁদায়। তোমাকে একবার দেখতে কিংবা একবার তোমার কন্ঠ শোনার
জন্য প্রতিটা মূহুর্তে ভেতরটা ভেঙে পড়েছে
কান্নার রোল তুলে সমুদ্রের পাহাড়তুল্য ঢেউয়ের মত। আমি তোমার পথের কাঁটা
হইনি। বরং, ভেতরের পাহাড় ভাঙা জলে থৈ থৈ করা ঝর্ণার জলের অতলে হারিয়ে গেছে নিজের আত্মবিশ্বাস , বাঁচার শক্তি। নিজেকে খুন করে নিজেই অপরাধী, হাজার বছরের
যাবজ্জীবনের কারাদেশে ফেরারী আসামী।
তোমাকে জানাইনি , জানতেও দেবোও না।

আমি হাজার অনুভূতি আমি বুকে পাথর চাপা দিয়ে রাখতে পারি। কারন ,
আমি দুরে থাকলেই কেবল তোমার সুন্দর হাসিটা টোল পড়ে ফুটে ওঠে। এর বেশি কিছু চেয়েছিলাম বলে মনে পড়েনি। তোমায় দেখতে চাইনি, স্পর্শ করিনি কিংবা সাহস করিনি হারানোর ভয়ে। কিন্তু হারিয়েই তো গেলে, তাই না ?

আমার জন্য তোমার সুন্দর হাসি ঠোঁটের কোনে মরে যাক এটাও সহ্য করতে পারবো না। কাউকেই ভালোবাসি না, বাসতে পারিনা। যে হাত ধরে রাখার স্বপ্ন দেখিয়ে কাছে আসে , দুদিনেই অন্য কারো কাঁধে স্বস্তিতে মাথা রাখে। আমি সাময়িক অবলম্বন কেবল তাদের। কাউকে ধরে রাখার যোগ্যতাও অনুভব করি না !

তোমায় ছাড়া মরে গেছি ভাবছো ? আরে না ,
আজ সকালেই তোমার কথা ভাবতে গিয়ে দিয়ে পুড়েছি তরকারী, খেয়েছি গত রাতের বাসি ভাত। আর গত হওয়া প্রতিটি গতকাল আমি সূর্যের সামনে যাই নি। আমি নিজেকেই নির্বাসনের শাস্তি দিয়েছি অন্ধকার আকাশের বুকে। আমি চাইলেই দাঁড়াতে পারতাম আকাশ ছোঁয়ার স্বপ্নে, তোমায়
পাওয়ার জন্য হয়ে যেতে পারতাম সিনবাদ
কিংবা হাল্ক। কিন্তু, কিন্তু কার জন্য দাঁড়াবো?

আজ অপরাধবোধ কাজ করে জানো,শুধু তুমি চলে গিয়েছিলে বলে আর কাউকে ভালোবাসতে পারি না!
কিন্তু
তোমায় হারিয়ে ফেলার পর কেউ আমাকে
ভালোবাসেনি। সব ছিলো অভিনয়! চলেই তো গেছে না ? কেউ কি আছে ?আছে কি কেউ না সব শুধু মায়া..!!

তোমার একটা নাম্বার আছে। প্রতিটা রাতে
আবেগে দু একটা টেক্সট পাঠাতে চাই কিন্তু
জমে যায় সব ড্রাফটসে। তারপর একদিন মুছে দেই কিংবা হারিয়ে ফেলি কর্পোরেট মেসেজগুলোর ভীরে। হারিয়ে যাওয়া সেই ল্যান্ডফোনের মত আমিও হারিয়ে যাওয়া কেউ।
চাইলেও আমাকে পাবে না , হয়তো আসবে না ,আসলেও আমি হাতটা ধরতে পারবো না!

তোমার আমার মাঝে কষ্ট নামের সহস্র আকাশ বাসা বেঁধেছে! চাইলেই যে সীমা অতিক্রম করা যায় না। কেবল কষ্টের আঘাতে শুকিয়ে যাওয়া চোখের কষ্টে ঠোঁটে
একটা শুকনো হাসি ঝুলিয়ে রাখি। তোমাদের নগরীর ব্যস্ত রাজপথের একটা একটা করে হলুদ ল্যাম্পপোস্টের আলো কে পিছে ফেলে এগিয়ে যাই। বাঁচতে হয়, তাই বেঁচে আছি, বেঁচে থাকবো তোমাকে নিয়ে জানো তো,

“You arr Never Die, If a
writer Falls in Love With you।”

কোন কিছু নিয়ে বাঁচতে হবে এমন অবলম্বন খুঁজে পাই নি, আশা করি প্রয়োজনও নেই।
আমার চাহিদা এখন টেকনিক্যাল মোড়ের
মামার টং এর দোকানের সেই জাহেদ ভাইয়ের পলিটিক্যাল এক কাপ চা। এই ক্ষুদ্র চাহিদা পূরনের জন্য বড় কোন স্বপ্ন দেখার কি খুব দরকার?

“মানুষের জীবনে অনেক কিছুই ঘটে যায় … এমন অনেক কিছু ঘটে, যেটার পর একটা মানুষ আরেকটা মানুষকে ভুলে যেতে
চায়, ভেবে নিচ্ছি সেটাই হয়েছে !! ভালো থাকবনা জানি কিন্তু চেষ্টা করে যেতে দোষ কোথায়…!!!!

ইতি,
নিম্নমধ্যবিত্ত ঘরের পরাজিত এক প্রেমিক

Check Also

তাহলে আবার ভয় কিসের !

মিডিয়া খবর:- আমার বিয়েটা প্রেম করে বিয়ে। লদকা লদকি টাইপ প্রেম না, ঝগড়ুটে প্রেম ! …

মিটসেফ – মোস্তাফিজুর রহমান টিটু

মিডিয়া খবর:-              -: মোস্তাফিজুর রহমান টিটু :- মিটসেফ। কাঠের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares