Home » চলচ্চিত্র » আবারও আটকে গেল পরীমনির রানা প্লাজা
rana-plaza

আবারও আটকে গেল পরীমনির রানা প্লাজা

Share Button

মিডিয়া খবর:-

অনেক চড়াই উৎরাই পার করে আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছিল রানা প্লাজা ছবিটি। কিন্তু বিধি বাম। সাভারের রানা প্লাজা ধ্বসের ঘটনা নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র ‘রানা প্লাজার’ প্রদর্শনী ও সম্প্রচারে ছয় মাসের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন Ranaplaza1হাইকোর্ট। ওই চলচ্চিত্রের জন্য সেন্সরবোর্ডের দেয়া ছাড়পত্রের কার্যকারিতাও ওই সময় পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।

বিচারপতি নাঈমা হায়দার এবং বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল এ আদেশ দেয়। ন্যাশনাল গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স এমপ্লয়িজ লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম রনির দায়ের করা একটি রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি শেষে হাইকোর্ট এ আদেশ দেয়। রিট আবেদনটির পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এবং ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোখলেছুর রহমান।

অন্তর্বর্তীকালীন আদেশের পাশাপাশি রুলও জারি করেছে হাইকোর্ট। রুলে রানা প্লাজা চলচ্চিত্রের সেন্সর বোর্ডের দেয়া সনদ কেন বাতিল করা হবে না- তা জানতে চাওয়া হয়েছে। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে তথ্য সচিব, চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের চেয়ারম্যান ও চলচ্চিত্রটির প্রযোজককে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এই আদেশের ফলে আগামী ৪ সেপ্টেম্বর মুক্তির অপেক্ষায় থাকা সিনেমাটি সিনেমা হলে প্রদর্শন বা কোনো মাধ্যমে সম্প্রচার করা যাবে না বলে জানিয়েছেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ মেহেদী হাসান চৌধুরী।

গত ২০ আগস্ট ন্যাশনাল গার্মেন্টস ওয়ার্কার্স এমপ্লয়িজ লীগের সভাপতি চলচ্চিত্রটির বিরুদ্ধে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করেন।

রিটে বলা হয়, ১৯৭৭ সালের ফিল্মস সেন্সরশিপ রুলস অনুযায়ী চলচ্চিত্রে কোনো ভীতিকর দৃশ্য প্রদর্শন বা দেখানো যাবে না। কিন্তু এ সিনেমায় বিভিন্ন ভীতিকর দৃশ্য রয়েছে।

শামীম আক্তার প্রযোজিত ও নজরুল ইসলাম খান পরিচালিত ‘রানা প্লাজা’ চলচ্চিত্রের দৈর্ঘ্য ২ ঘণ্টা ১৭ মিনিট ১৬ সেকেন্ড।

চলচ্চিত্রটির ছাড়পত্র দীর্ঘদিন আটকে থাকার পর গত ১৬ জুলাই বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড ‘রানা প্লাজা’ চলচ্চিত্রকে সনদপত্র দেয়।

নজরুল ইসলাম খানের কাহিনী, চিত্রনাট্য এবং মুজতবা সউদের লেখা সংলাপ নিয়ে নির্মিত রানা প্লাজা ছবির কাহিনী এগোয় দুই তরুণ-তরুণীর প্রেম, ভালবাসা ও বিয়েকে ঘিরে। সাইমন ও পরীমনি প্রেম করে বিয়ে করে চলে আসে ঢাকায়। এসে একটি বস্তিতে ওঠে। সাইমন সিএনজি চালায়। এক সময় স্থানীয় মাস্তানদের সঙ্গে মারামারিতে সাইমনের পা ভেঙে গেলে পরীমনি সংসার চালানোর জন্য একটি গার্মেন্টে কাজ নেয়। একদিন ঘটে সেই ভয়াবহ দুর্ঘটনা। দুর্ঘটনার ১৭ দিন পর জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় পরীমনিকে। ছবিতে পরীমনি রেশমা চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

Check Also

nuru miah o tar beauty driver

নুরু মিয়া ও তার বিউটি ড্রাইভার

মিডিয়া খবর :- গত ২৪ জানুয়ারি কোনও কর্তন ছাড়াই বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পায় …

tanha, shuva

ভাল থেকো চলচিত্রের পোস্টার প্রকাশ

মিডিয়া খবর:- প্রকাশ হল জাকির হোসেন রাজুর নির্মিতব্য চলচিত্রের পোস্টার। জাকির হোসেন রাজুর নির্মাণে আসছে নতুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares