Home » মঞ্চ » শিল্পকলা একাডেমিতে বাজাও বিশ্ববীণা এবং চন্ডালিকা

শিল্পকলা একাডেমিতে বাজাও বিশ্ববীণা এবং চন্ডালিকা

Share Button

মিডিয়া খবর:-

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর স্টুডিও থিয়েটার হলে আজ ৩০ মে সন্ধ্যা ৭টায় পিপলস লিটল থিয়েটার মঞ্চস্থ করতে যাচ্ছে তাদের অনবদ্য দুটি প্রযোজনা, ‘বাজাও বিশ্ববীণা’ এবং ‘চন্ডালিকা’।

শিশু সংগীতের গীতি আলেখ্য ‘বাজাও বিশ্ববীণা’র গ্রন্থণা ও সংগীত পরিচালনা করেছেন লিয়াকত আলী লাকী এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচনা ও ভারতের বিশিষ্ট নৃত্য পরিচালক সোমা গিরির নির্দেশিত নৃত্যনাট্য ‘চন্ডালিকা’। ‘বাজাও বিশ্ববীণা’র ৫৬তম এবং চন্ডালিকা’র ৪১তম প্রদর্শনী হতে যাচ্ছে।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিখ্যাত নৃত্যনাট্য ‘চণ্ডালিকা’। রাজেন্দ্রলাল মিত্র-কর্তৃক সম্পাদিত নেপালী বৌদ্ধ সাহিত্যে শার্দূলকর্ণাবদানের যে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেওয়া হয়েছে তা থেকে এই নাটিকার গল্পটি নেওয়া হয়েছে। এক চণ্ডালীর জীবনকে ঘিরে এই নাটকের কাহিনী আবর্তিত হয়েছে।

গল্পের ঘটনাস্থল প্রাচীন নগরী শ্রাবস্তী। প্রভুpeoples-Little-theatre বুদ্ধ তখন অনাথপিণ্ডদের উদ্যানে প্রবাস যাপন করছেন। তাঁর প্রিয় শিষ্য আনন্দ একদিন এক গৃহস্থের বাড়িতে আহার শেষ করে বিহারে ফেরবার সময় তৃষ্ণা বোধ করলেন। দেখতে পেলেন, এক চণ্ডালের কন্যা, নাম প্রকৃতি, কুয়ো থেকে জল তুলছে। তার কাছ থেকে জল চাইলেন, সে দিল। তাঁর রূপ দেখে মেয়েটি মুগ্ধ হল। তাঁকে পাবার অন্য কোনো উপায় না দেখে মায়ের কাছে সাহায্য চাইলে। মা তার জাদুবিদ্যা জানত। মা আঙিনায় গোবর লেপে একটি বেদী প্রস্তুত করে সেখানে আগুন জ্বালল এবং মন্ত্রোচ্চারণ করতে লাগল। আনন্দ এই জাদুর শক্তি রোধ করতে পারলেন না। রাত্রে তার বাড়িতে এসে উপস্থিত। তিনি বেদীর উপর আসন গ্রহণ করলেন। প্রকৃতির মনে তখন পরিতাপ উপস্থিত হল। সে পরিত্রাণের জন্যে ভগবানের কাছে প্রার্থনা জানিয়ে কাঁদতে লাগল।

ভগবান বুদ্ধ তাঁর অলৌকিক শক্তিতে শিষ্যের অবস্থা জেনে একটি বৌদ্ধমন্ত্র আবৃত্তি করলেন। সেই মন্ত্রের জোরে চণ্ডালীর বশীকরণবিদ্যা দুর্বল হয়ে গেল এবং আনন্দ জাদুমুক্ত হলেন। প্রকৃতি জীবনের বাস্তব সত্য উপলব্ধি করতে পারল এবং নতুনভাবে জীবন লাভ করল।

১০০ ও ৫০ টাকার টিকেটের বিনিময়ে যে কেউ প্রদর্শনীটি উপভোগ করতে পারবেন। শিশুদের জন্য টিকেটের মূল্য ৩০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ‘নাটক শুধুমাত্র বিনোদন নয়, নাটক এখন শিক্ষার অন্যতম মাধ্যম’ এ ধারণা থেকে দেশে নিয়মিত শিশু কিশোর নাট্যচর্চা করার প্রত্যয়ে ১৯৯০ সালে লোক নাট্যদলের চিলড্রেন্স থিয়েটার যাত্রা শুরু করে। পরবর্তীকালে দলের নাম পরিবর্তন করে পিপলস লিটল থিয়েটার করা হয়। গত ২৫ বছরে পিপলস লিটল থিয়েটার ২৮টি নাটকের প্রায় তিন শতাধিক মঞ্চায়ন সম্পন্ন করেছে। আমাদের দেশের ছোটদের নাটককে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে জনপ্রিয় করার ক্ষেত্রে পিপলস লিটল থিয়েটার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

পিপলস লিটল থিয়েটার আন্তর্জাতিক শিশুনাট্য উৎসবে জার্মানীর লিংগেন, হ্যানোভার, বার্লিন, কিউবার হাভানা, রাশিয়ার মস্কোতে, ভারতের বেরিলী, দিল্লী, জাপানের তইয়ামা ও যুক্তরাজ্যের লন্ডন, তুরস্কের অরদুসহ প্রায় ২৫টি আন্তর্জাতিক উৎসবে অংশগ্রহণ করেছে।

 

 

Check Also

রিজওয়ান

শিল্পকলায় রিজওয়ান উৎসব

মিডিয়া খবর :- সামজিক-সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে মূলধারার চর্চা ও গবেষণা সংগঠন ‘মনন সমাজ সংস্কৃতি’র নাট্যবিভাগ ‘নাটবাঙলা’র …

madhu shikari

বটতলার নাটক মধুশিকারী

মিডিয়া খবর :- আজ শুক্রবার বটতলার ৯ম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।  বিকেলে মহিলা সমিতিতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নাটকের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares