Home » ইভেন্ট » গৌড়ীয় নৃত্য’ প্রাচীন বাংলার শাস্ত্রীয় নৃত্য
gourio-nritto

গৌড়ীয় নৃত্য’ প্রাচীন বাংলার শাস্ত্রীয় নৃত্য

Share Button

মিডিয়া খবর :-

‘গৌড়ীয় নৃত্য’ বাংলাদেশেরই নৃত্য। এ নাচ প্রাচীন বাংলার শাস্ত্রীয় নৃত্য। বিশ্বের সংস্কৃতি অঙ্গনে একটি সুপ্রতিষ্ঠিত সংস্কৃতিকে তুলে ধরার লক্ষ্যে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী’র সঙ্গীত, নৃত্য ও gourio-nritto-2আবৃত্তি বিভাগের ব্যবস্থাপনায় ১২, ১৩, ১৪ মার্চ ২০১৫ এই তিনদিনব্যাপী ‘গৌড়ীয় নৃত্য’ কর্মশালা’র আয়োজন করা হয়। কর্মশালা পরিচালনা করেছেন র‌্যাচেল প্রিয়াঙ্কা প্যারিস। এই কর্মশালায় বাংলাদেশের বিভিন্ন নৃত্য সংগঠনের ৪০জন নৃত্যশিল্পী অংশগ্রহণ করেছে।

কর্মশালার সমাপনী উপলক্ষ্যে আজ ১৪ মার্চ ২০১৫ বিকেল ৪টায় একাডেমীর জাতীয় সঙ্গীত ও নৃত্যকলা ভবনের ৫নং মহড়া কক্ষে অংশগ্রহণকারী সকল প্রশিক্ষণার্থীদের সনদপত্র বিতরণ ও নৃত্যানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় । সমাপনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালক জনাব লিয়াকত আলী লাকী এর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন নৃত্যশিল্পী শর্মিলা বন্দোপাধ্যায়, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর সঙ্গীত, নৃত্য ও আবৃত্তি বিভাগের পরিচালক জনাব সোহরাব উদ্দীন, এবং কর্মশালার প্রশিক্ষক র‌্যাচেল প্রিয়াঙ্কা প্যারিস ।

প্রসঙ্গত, বহুদিন থেকে আমাদের একটি ধারণা তৈরি হয়েছে যে আমাদেরgourio-nritto-1 অর্থাৎ বাংলার কোন শাস্ত্রীয় নৃত্য নেই। বাঙালি একটি ঐতিহ্যশালী জাতি হবার পরও এদের কোন শাস্ত্রীয় নৃত্য নেই। সেই দিক বিবেচনায় বলা যায় যে ‘গৌড়ীয় নৃত্য’ প্রাচীন বাংলার শাস্ত্রীয় নৃত্য। ‘শাস্ত্রীয় নৃত্য’ নামকরণটি করেছেন অধ্যাপক ব্রতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায় ও অধ্যাপক মহুয়া মুখোপাধ্যায় ১৯৯৪ সালের ২১শে সেপ্টেম্বরে। ‘‘ঝপযড়ড়ষ ড়ভ ঐরংঃড়ৎরপধষ ধহফ ঈঁষঃঁৎধষ ঝঃঁফরবং’’ শীর্ষক গৌড়ীয় নৃত্য সেমিনারে। এই বিশেষ নৃত্যটি ‘বঙ্গীয়’ কিংবা ‘বাংলার নৃত্য’ নামটি গ্রহণ করতে পারতো। কিন্তু তা না করে নামকরণ করা হয়েছে ‘গৌড়ীয় নৃত্য’ নামে। ‘গৌড়’ কথাটির একটি বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে। প্রথমত ‘গৌড়’ শব্দটি এসেছে ‘গুড়’ শব্দ হতে যা বাংলার অতি পরিচিত মিষ্টান্ন দ্রব্য। এছাড়া বৃহৎ বঙ্গের অধিপতি রাজা শশাঙ্ককে ‘গৌরাধিশ’ বলে ভূষিত করা হয়েছিল। রাজা রামমোহন রায় কর্তৃক বাংলার প্রথম ব্যাকরণ ‘গৌড়ীয় ব্যকরণ’, প্রাচীন মার্গীয় সঙ্গীতের রাগ, গৌড়কৈশিকী, গৌড়পঞ্চমা, গৌড়রাগ ইত্যাদি রূপসমূহ, মহাপ্রভু চৈতন্যদেব প্রণীত ‘গৌড়ীয় বৈষ্ণধর্ম’, গৌড়বঙ্গে সাহিত্য রচনা রীতি ‘gourio-nrittoগৌড়ীয় রীতি’ অর্থাৎ যা কিছু গৌড়বঙ্গের শিল্পকলা তাই প্রাচীনকাল থেকে ‘গৌড়ীয়’ নামে অভিহিত হয়ে আসছে। এরই ভিত্তিতে বাংলার শাস্ত্রীয় নৃত্যের নামকরণ ‘গৌড়ীয় নৃত্য’ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৫তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস ২০১৫ উদ্যাপন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর উদ্যোগে প্লে থেকে ১০ম শ্রেণী তিনটি গ্রুপে আজ ১৪ মার্চ ২০১৫ শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রচিত গানের প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে উপস্থিত পঙক্তি রচনা প্রতিযোগিতা ও বঙ্গবন্ধুর ০৭ই মার্চের ভাষন প্রতিযোতার আয়োজন করা হয়।

‘ক’ গ্রুপ প্লে থেকে ৩য় শ্রেণী, ‘খ’ গ্রুপ ৪র্থ থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেণী এবং ‘গ’ গ্রুপ ৭ম থেকে ১০ম শ্রেণী । ৭ই মার্চের ভাষন, বঙ্গবন্ধুর ছেলেবেলা ও বঙ্গবন্ধুর মহাপ্রয়াণ বিষয়ে একাডেমীর জাতীয় চিত্রশালা প্লাজায় শিশু চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় ৩টি গ্রুপে অংশগ্রহণ করে প্রায় ৬০জন প্রশিক্ষণার্থী এবং একাডেমীর জাতীয় সঙ্গীত ও নৃত্যকলা কেন্দ্র মিলনায়তণে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে রচিত গানের প্রতিযোগিতায় ২৭জন, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে উপস্থিত পঙক্তি রচনা প্রতিযোগিতায় ২৬জন ও বঙ্গবন্ধুর ০৭ই মার্চের ভাষন প্রতিযোতায় ১০জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণ করে।

gourio

Check Also

charja

চর্যানৃত্য ও শাস্ত্রীয় গৌড়ীয় নৃত্য পরিবেশনা

মিডিয়া খবর :- চর্যাপদ প্রকাশের শতবছর পূতি উপলক্ষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে একাডেমির সংগীত, নৃত্য …

mahi dance

টিভিতে মাহির নৃত্য

মিডিয়া খবর :- ঈদে বড় পর্দায় দেখা না গেরেও  তবে ছোট পর্দায় ঠিকই থাকছেন জনপ্রিয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares