Home » টিভি নাটক » বীরাঙ্গনার যাপিত জীবন নিয়ে বোধ
bodh

বীরাঙ্গনার যাপিত জীবন নিয়ে বোধ

Share Button

মিডিয়া খবর :-

আমরা জানি ৩০ লক্ষ্য শহীদ আর ২ লক্ষ্য মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি এ্ই স্বাধীন সার্ভভৌম সোনার বাংলা। পার হয়ে গেছে মুক্তিযুদ্ধের ৪৪ বছর। স্বাধীন দেশে সম্মানিত সকল মুক্তিযোদ্ধা- যারা যুদ্ধ করেছেন অস্ত্র নিয়ে, কণ্ঠ দিয়ে, কলম দিয়ে, সাহায্য সহযোগিতা দিয়ে এবং অনুপ্রেরণা দিয়ে। কিন্তু ২ লক্ষ্য মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা এ্ই কথাটি যেন কথার কথা ই থেকে গেছে। আদর করে, সম্মান দেখিয়ে তাদের বীরাঙ্গনা খেতাব দেয়া হলেও তা শুভঙ্করের ফাঁকিতে পরিনত হযেছে। স্বাধীনতার পরপর যেমন ঘৃণিত ও উপেক্ষিত ছিল এ্ই বীরাঙ্গনা মুক্তিযোদ্ধারা আজও আছে তেমনি। আড়ালে থেকে গেছে মুক্তির ইতিহাসের বীরাঙ্গনা নামের সে অধ্যায়। উপেক্ষিত এই মুক্তির সৈনিকদের নিয়েই নতুন চেতনায় নির্মিত হল ‘বোধ’।

কিশোর মাহমুদের রচনা ও পরিচালনায় ‘বোধ’ টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন মিতা চৌধুরী, শতাব্দী ওয়াদুদ, দীপা খন্দকার, মাহবুবা3 ছায়া প্রমুখ। রাজশাহী, দৌলতদিয়া এবং ঢাকার বিভিন্ন স্থানে শুটিং সম্পন্ন হয়েছে এই টেলিফিল্মের। টেলিফিল্মটি নিয়ে পরিচালক বলেন, ‘বীরাঙ্গনাদের নিয়ে আমরা অনেক কিছু করার কথা কেবল মুখেই বলি। কিন্তু যদি তিনি আমাদের কাছের কেউ হয়, চেপে যাই। এভাবেই তারা অবহেলিত। আমার অমুক মুক্তিযোদ্ধা, বলার সময় আমরা গর্ববোধ করি। কিন্তু কেউ ভুলেও উচ্চারণ করিনা যে আমার পরিবারের অমুক দেশ স্বাধীন করতে গিয়ে হারিয়েছেন সম্ভ্রম। কিন্তু তারা আমাদের গর্ব। এই চেতনা নিয়েই আমার এই টেলিফিল্ম’।

গল্পে একজন বীরাঙ্গনার যাপিত জীবন দেখা যাবে। পাক হানাদার বাহিনী কর্তৃক নির্যাতিত এই নারী দেশ স্বাধীন হওয়ার পরেও কোথাও আশ্রয় পায়না। কোন অপরাধ না থাকা সত্ত্বেও সমাজ তাকে ভ্রষ্টা বলে তাড়িয়ে দেয়। গোয়াল ঘরে জন্ম নেয় নির্যাতনের গর্ভজাত ফসল। শেষপর্যন্ত তার ঠাঁই হয় পতিতাপল্লীতে। মুক্তির এক সৈনিক সমাজের কাছে পরিচিত হয় দেহপসারিনী হিসেবে।

সময়ের পালাবদলে একদিন একজন সাংবাদিক তার সাক্ষাৎকার নিতে যায়। নানা কথায় প্রকাশিত হয়, এই সাংবাদিক তার সন্তান। তারপর? বর্তমান সমাজের আধুনিক মানসিকতা তাকে দিতে পারবে প্রাপ্য সম্মান? নাকি তথাকাথিত শিক্ষিত সমাজ তাকে দ্বিতীয়বারের মত ঠেলে দেবে অন্ধকারে?

টেলিফিল্মে বীরাঙ্গনার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মিতা চৌধুরী। চরিত্র এবং টেলিফিল্ম নিয়ে তিনি বলেন, ‘সময়ের দাবী নিয়েই নির্মাণ হয়েছে টেলিফিল্মটি। মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সম্মান দেওয়ার বদলে একজন বীরাঙ্গনার স্থান হয় পতিতাপল্লীতে। নতুন চেতনা এবং চলতি মানসিতার প্রতিবাদের এখনই সময়। পরিচালকের সঙ্গে আমার এই প্রথম কাজ। তবে কাজটি ভিন্নধর্মী এবং খুব ভালো হয়েছে। দৌলতদিয়ার পতিতাপল্লীতেও শুটিং করেছি আমরা।’2

হুমায়ুন ফরিদি অভিনীত শেষ নাটক ‘তার কেউ নেই’, ‘বিনোদ বাবুর উপাখ্যান’, ‘প্রশাখা’ সহ প্রায় দশটি নাটক ও টেলিফিল্ম নির্মাণ করেছেন তরুণ নির্মাতা কিশোর মাহমুদ। তবে ‘বোধ’ তার মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক প্রথম নির্মাণ। পরিচালক জানান, রাজশাহীর সৈয়দপুর গ্রামে শুটিং করেছেন তারা যেখানে প্রায় সাড়ে চার হাজার মুক্তিযোদ্ধার কবর রয়েছে। এবছর স্বাধীনতা দিবসে টেলিফিল্মটি মাছরাঙা টেলিভিশনে প্রচারের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। তার বিশ্বাস, ‘বোধ’ নতুন চেতনার মাইলফলক হবে।

Check Also

nisho-faria

নিশো-ফারিয়ার একটি তিন মাসের গল্প

মিডিয়া খবর:- মাবরুর রশিদ বান্নাহ নির্মিত নতুন নাটক ‘একটি তিন মাসের গল্প প্রচারিত হবে আগামীকাল …

ftpo

টিভি চ্যানেলের সামনে এফটিপিও’র অবস্থান ঘোষণা

মিডিয়া খবর :- আগামী ১৯ ডিসেম্বর থেকে চারটি টিভি চ্যানেলের সামনে বিদেশি সিরিয়াল বাংলায় ডাবিং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares