Home » চলচ্চিত্র » বাপ্পারাজের কার্তুজ ও দর্শক ভাবনা

বাপ্পারাজের কার্তুজ ও দর্শক ভাবনা

Share Button

মিডিযা খবর:-      -: আদি দ্যা গুরু:-

দেখলাম কার্তুজ আনন্দ হলে সাথে ছিলো রাজলক্ষির পরিদর্শক। ছবিটা নিয়ে টেকনিক্যাল আলোচনা সমালোচনা করা ই যায় বলা যায় অনেক দুর্বলতার কথা। টেকনিক্যালি সাউন্ড হয়ে পর্দার সামনে বসে তোলা যায় সমালোচনার ঝড় তবে নবীন পরিচালক তার প্রথম ছবিতে সব উল্টিয়ে ফেলবে তা যে ভাবে সে সুভবুদ্ধিসম্পন্ন নয়। তারো চেয়ে বড় কথা আমরা পর্দার পেছনের লোকেরা কি বলি তার চেয়ে বেশী দাম পর্দার সামনে বসে দেখা স্রোতা দর্শক কি বললো সেটা। ভাই গত একবছরে বেশ কিছু তীব্র আলোচিত ছবি দেখেছি, দেখেছি সেসব ছবির পরিচালকদের বাগড়াম্বর। কিন্তু হলে হলে চেক করতে যেয়ে দেখেছি দর্শক গালি দিচ্ছে বিরতিতে উঠে চলে যাচ্ছে।
বাপ্পা ভাই কার্তুজ করলেন কিছুটা নিরবে, বরাবর ই প্রচার বিমুখ এই চলচ্চিত্র তারকা ছবি রিলিজের আগেও তেমন জোরালো প্রচারনা করলেন না, করলেন না বড় বড় বাগড়াম্বর। বরং একদিন কথা বলতে গিয়ে যখন অকপটে বললেন অনেক কিছুই বুঝিনা জানিনা চেষ্টা করছি আর এটা নিয়ে এত বেশী প্রচারের কি আছে? এমন আহা মরি তো কিছু নয়!! নায়ক বাপ্পার ভক্ত ছিলাম ছোট থেকেই তখন থেকে মানুষ ও পরিচালক বাপ্পা ভাই এর ভক্ত হয়ে গেলাম।
আবার ফিরি আজকের ছবির সমালোচনা আলোচনায় ‘রাজনৈতিক পরিস্থিতিতি আর বিশ্বকাপের উত্তেজনার ফলে সাড়ে সাতশ আসনের এই হলে ইভিনিং শোতে দর্শক ছিলো সাড়ে পাঁচশ’র মতো, যার মধ্যে উঠতি বয়সীদের সংখ্যাই বেশী তবে নারী ও সপরিবারে আসা দর্শকদের সংখ্যাই বেশী ছিলো ডিসিতে যা খুবি অবাক করেছে আমাকে। কে কেমন অভিনয় করলো, ফ্রেমিং এ কোথায় দুর্বলতা কি কি সমস্যা তা লিখে আমারা সিনেপাগলা সদস্যদের অনুৎসাহিত করতেই পারি এবং পান্ডিত্য জাহির করতে তা করাও উচিত্ তবে তার আগে বলা উচিত্ দর্শকদের আচরন সম্পর্কে। গত একবছরের ছবিগুলো দেখে যে অভিজ্ঞতা হয়েছে তা আজ উল্টে গেলো কেমন যেনো এলোমেলো হয়ে গেলো মাথাটা। যেখানে ছবির শুরু থেকেই পন্ডিত আমি মুচকি হাসছি আর ভুল ধরে যাচ্ছি আর ভাবছি এই দর্শক গালি দিলো বলে, তাজ্জব ৪র্থ সিকোয়েন্সে  সম্রাট যখন রিক্তার হাত ধরে ভরা মার্কেটে হন হন করে টেনে নিয়ে যাচ্ছে তখনি দুই নিজেকে হিরো ভাবা তরুন পথ অটকালে সম্রাট জ্যাকেট সরিয়ে সাইড আর্মস দেখানোর পর ঐ হিরোদের গুটিয়ে যাওয়া নিয়ে যে হাসি তালি আর শিটি মারা শুরু হলো তা রিক্তার মাল্টিন্যাশনাল উম্মাতে হলো বেগবান আর সারা ছবিময় তা চললো আমাকে ক্রমাগত হতাস করে। আমি ভাবি এরা বোকা নাকি শিটি মারে হাত তালি দেয়!!! কিন্তু হায় ছবির শেষে দেখা গেল আমি বা আমাদের মতো স্বঘোষিত পন্ডিতরাই বোকার হদ্দ, দর্শক ই  চালাক।
সালাম বাপ্পা ভাই হাজার সালাম আপনাকে অপনি বাগড়াম্বার করেননি করেননি অহমিকা তাই দর্শকরা প্রবল প্রত্যাশার বদলে গিয়েছে প্রবল কৌতুহল নিয়ে এবং এ কারনেই আপনার ভুলগুলো তারা  ক্ষমা করে সযতনে এড়িয়ে ভালো অংশগুলো মন থেকে গ্রহন করেছে। একটা ছবিতো পুরো খারাপ হয়না কিছু খারাপ বা ভুল হতেই পারে বাকিটাতো ঠিক থাকে আর একটা ছবির কিছু সিকোয়েন্স ই মাত্র হিট করে দর্শকের মনে তখনি ছবিটা সুপার হিট হয়ে ওঠে এদিক থেকে পুর্ণ সার্থক কার্তুজ ও এর নির্মাতা বাপ্পা ভাই। নবীন পরিচালক যারা আমরা এ থেকে দুটো গুরুত্বপুর্ণ শিক্ষা লাভ করেছি তা হলো  ১। নমনীয় সদাচারন দর্শকদের মনে সম্মান তৈরী করে ২। প্রচারে বাগড়াম্বর না করলে দর্শকদের মনে অধিক প্রত্যাশার জন্ম হয়না ফলে তারা ছবিটিতে ভুমিষ্ট হওয়া শিশু পরিচালকের ভুল ত্রুটি দেখে নমনীয় চোখে।
ছবিতে নবগতা রিক্তা সম্রাটের আর নবাগত সোহানের সাথে নিপুনের নবীন প্রবীন জুটি দর্শক ভালভাবে নিয়েছে এটা একটা পজেটিভ দিক এবং তাদের প্রেমের চুটুল কয়েকটি সিনে ব্যাপক শিটি বেজেছে যা আশাব্যঞ্জক বটে। এর মধ্যে একটি সিনতো মন কেড়েছে আমারো সম্রাট যখন গাড়ির টায়ার বদল করছে রিক্তা পিছে দাড়িয়ে ওড়না দিয়ে ছায়া দিচ্ছ! ওয়াহ হোয়াট আ সীন! হাজার শিটি। নবাগত সোহান আর রিক্তা তোমাদের বলছি তোমরা পারবে এগিয়ে যাও। ছবির টুইস্ট গুলোও দর্শকদের বিনোদিত করেছে ব্যাপক। যারা দেখেননি তারা হলে যাবেন এবং ছবিটি দেখবেন তা আমার প্রত্যাশা, আপনার টাকা বিফলে যাবেনা এটা হলফ করে বলতে পারি। পরিশেষে বাপ্পা ভাই ও তার কার্তুজ টিমকে অসংখ্য ধন্যবাদ, অভিনন্দন এবং শুভকামনা জ্ঞাপন করছি। ধন্যবাদ।
লেখকঃ চলচিত্র সমালোচক, নির্মাতা ও সাংবাদিক।

Check Also

shabnoor

আসছে শাবনূরের পাগল মানুষ

মিডিয়া খবর:- বিনাকর্তনে সেন্সর বোর্ড ছাড়পত্র পেল শাবনূরের ‘পাগল মানুষ’। ২০১১ সালের জুন মাসে ‘পাগল মানুষ’ …

বস ২ ছবির ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কা

মিডিয়া খবর:- বস ২ ছবির ভবিষ্যৎ নিয়ে দেখা দিয়েছে শঙ্কা।  আগামী ঈদুল ফিতরে দেশজুড়ে যৌথ প্রযোজনার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares