Home » চলচ্চিত্র » বর্তমান চলচিত্র আন্দোলন ও একটি গল্পঃ
wanted-protest

বর্তমান চলচিত্র আন্দোলন ও একটি গল্পঃ

Share Button

মিডিয়া খবর:-     -: আদি দ্যা গুরু :-

 
এক লোকের ঘরে চুরি হয়েছে, চোরকে ধাওয়া করা হয়েছে কিন্তু তাকে ধরা যায়নি এখন লোকটি বিলাপ করছে। জনৈক ব্যাক্তি জানতে চাইলোঃ

জনৈকঃ ভাই ঘটনা কি? চোর দরজার খিল ভেঙ্গে ঢুকলো আপনি কি টের পাননি?
ভুক্তভোগীঃ ভাই পাইছিলামতো টের।
জনৈকঃ তবে তখনি ধরেননি কেন বা চিত্‍কার ই বা কেন দেননি?
ভুক্তভোগীঃ ভাবলাম দেখি শালা কি করে। যখন আমার মাথার কাছ থেকে চাবী নেয় তখনো দেখলাম ভাবলাম দেখি কেমনে নেয়, যখন আলমারীর কাছে দাড়াইছে তখন ভাবলাম দেখি আওয়াজ না করে কেমনে খুলে। যখন আলমারী খুলে সব কিছু তার ঝোলায় ভরছে ভাবলাম দেখি শালা কেমনে ভরে। যখন সব নিয়ে চলে যাচ্ছে ভাবলাম কিভাবে পালাচ্ছে দেখি। যখন দরজা দিয়ে বেরিয়ে দৌঁড় দিলো তখন ভাবলাম এবার চিত্‍কার দি সবাই মিলে ধরি।
জনৈকঃ আমি স্পীকার হয়া গেলাম।
মোরাল অব দ্য স্টোরী এবং চলমান আন্দোলনের সাথে এর সম্পর্কঃ

যখন চলচ্চিত্রের মান নিম্নগামী এবং হিন্দি তামিলের কাট কপি পেস্টে একটু একটু করে দিশেহারা তখন আমাদের চলচ্চিত্র সংশ্লীষ্টরা ভেবেছেন একটু দেখি কি হয়, যখন একটা বড় রকম দর্শক শ্রেণী মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে হল থেকে তখনো ভাবলো দেখিনা কি হয়, যখন একটা একটা করে হল বন্ধ হতে শুরু করলো তখনো ভাবছে দেখিনা আরেকটু কি হয়। তারপর যখন কিছু নতুন ও প্রবীন মিলে আমরা চলচ্চিত্রে পরিবর্তনের লক্ষে উন্নত ও সময়োপযোগী কিছু কাজের মাধ্যমে ২০১৫ এ চলচ্চিত্রকে একটা নতুন মোড় দিতে এবং ২০১৭ নাগাদ বিশ্বমানে পৌঁছবার কাজে ব্রত হলাম তখনি যৌথ প্রতারনার আর হিন্দি ছবির রিলিজ শুরুর প্রচেষ্টা শুরু হলো। তখনো নেতারা নিরব দেখি কি হয়। যখন সেন্সরে জমা দিলো তখনো নিরব, যখন প্রজোযক পরিবেশক সমিতি থেকে ডেট নেয় তখনো নিরব, যখন এটার প্রচারনা চলছে তখনো নিরব। যখন রিলিজের ৩দিন বাকি তখন টনক নড়লো এবং কাফন বেধে রাজপথে ঝাপায় কাঁপায় অস্থীর হয়ে গেলো। অথচ বাংলার দুই বড় চলচিত্র সংগঠন সিনেপাগলা এবং বোফা কয়েকমাস আগে থেকেই অনলাইন ও রাজপথে এর বিরোধীতা করে আসছে তখনত কেউ সমর্থন দিলোনা। আপনাদের বলি আপনারা কাফন পরে অক্কা যান আর আমরা মক্কাবাসিরা চলচ্চিত্রের হালটা ধরার সুযোগ পাই। যে আন্দোলনটা করলেন লাস্ট আওয়ারে তাতেও বিরাট শুভঙ্করের ফাঁকি।
জেনে রাখুন বাংলাদেশের প্রগতিশীল চলচ্চিত্র কর্মী ও প্রেমীদের নিয়ে বোফা অনলাইনে সিনেপাগলা রাজপথে কঠিন আন্দোলনের জন্ম দেবে। এক দফা এক দাবি দালাল হটাও দেশীও চলচ্চিত্র বাঁচাও। শুধু ভারতীয় চলচ্চিত্র ও যৌথ প্রতারনাই নয় সাথে স্যাটালাইট নেটওয়র্ক বন্ধের দাবীও থাকবে। এ লক্ষে শীঘ্রই সম্মিলিত মিডিয়া ঐক্য নামে বড় মোর্চা গঠন করা হবে।
জয় হোক বাংলার চলচ্চিত্র প্রেমীদের, দীর্ঘজিবী হোক বাংলাদেশের চলচ্চিত্র।”

Check Also

rawnak-hasan

রওনক হাসানের খারাপ মেয়ে ভালো মেয়ে

মিডিয়া খবর :- মঙ্গলবার থেকে নিজের প্রথম স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের কাজ শুরু করেছেন অভিনেতা ও নির্মাতা …

dhaka international film festival

পঞ্চদশ ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব

মিডিয়া খবর :- ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’ স্লোগান নিয়ে বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে শুরু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares