Home » চলচ্চিত্র » প্রসঙ্গঃ যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র – রেজওয়ান সিদ্দিকী অর্ন
ami-shudhu-web-5

প্রসঙ্গঃ যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র – রেজওয়ান সিদ্দিকী অর্ন

Share Button

প্রসঙ্গঃ যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্র – রেজওয়ান সিদ্দিকী অর্ন

ঢাকা, ১৫ এপ্রিল:-

একসময় ভারত-বাংলাদেশ যৌথ প্রযোজনার সিনেমা নির্মাণ হলে ৫০-৫০ নিয়ম মানা হতো। কখনো আবার ৬০-৪০ নিয়মও মানা হতো। যে নিয়মে বাংলাদেশেরই লাভ হতো বেশী। কেননা সেখানে বংলাদেশী শিল্পীরা প্রাধান্য পেতো তথা প্রধান চরিত্রে থাকতো। ‘হঠাৎ বৃষ্টি’,’মনের মাঝে তুমি’ সিনেমার কথা উল্লেখ করা যেতে পারে। আরো সিনেমা থাকলেও ব্যবসায়িক দিক বিচারে এই দু’টি সিনেমাকে এগিয়ে রাখবো। ‘হঠাৎ বৃষ্টি’ তো ফেরদৌস ভাইকে কোলকাতায় আলাদা জায়গা করে দেয়। এদিকে রিয়াজ-পূর্ণিমা জুটির ‘মনের মাঝে তুমি’ দুই বাংলায় দারুণ ব্যবসা করে। উক্ত সিনেমায় কোলকাতার ফ্লপ নায়ক যীশু সেন গুপ্ত ছিলেন পার্শ্ব নায়ক। অথচ অশোক পাতি’র ১৬ই মে মুক্তি পেতে যাওয়া দুই বাংলার যৌথ প্রযোজনার সিনেমা ‘আমি শুধু চেয়েছি তোমায়’ সিনেমায় দেখতে পাই ৫০-৫০ নিয়ম ভঙ্গ করা হয়েছে। যদি সিনেমার বাংলাদেশ পক্ষ থেকে থাকা সহযোগী পরিচালক তা স্বীকার করতে চান না। আমিও সহকারীকে বললাম কারন, ভারতীয় মিডিয়া তাকে সেভাবেই উপস্থাপন করছে। এ নিয়ে আমাদের পক্ষের পরিচালকের যেহেতু মাথা ব্যথা নেই সেহেতু আমার মাথা ব্যথা করে লাভ নাই। তারপরো আমাকে মাথা ব্যথা করতে হচ্ছে, লিখতে হচ্ছে। সিনেমাটিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রের দু’জনই ভারতীয় তথা অঙ্কুশ-শুভশ্রী। বাংলাদেশ থেকে নেয়া হয়েছে সব পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয়ের জন্য। মেঘলা নামের একজন নায়িকা নেয়া হয়েছে দ্বিতীয় নায়িকা হিসেবে। সায়মন সাদিককে নেয়া হয়েছিলো। কিন্তু তার চরিত্র দেয়া হয়েছিলো পার্শ্ব নায়কের। যদিও পরে তিনি এটা বুঝতে পেরে সিনেমাটি করেন নি। এ সিদ্ধান্তে সায়মন ভাইকে ধন্যবাদ না দিলে বড় অন্যায় হয়ে যাবে। এমন যৌথ প্রযোজনার সিনেমা আদৌ কখনো বাংলাদেশকে উপরে তুলবে কিনা সেই বিষয় তুমুল সংশয় থেকে যায়! তবে এটা নিশ্চিত এভাবে চললে আমাদের সিনেমা কখনোই সামনে এগোবে না। সামনে এগোনোর পথে ভারতীরা এভাবেই যৌথ প্রযোজনার সিনেমার নামে ওদের সিনেমা আমাদের গেলাবে। আমরা হয়তো বাধ্য হয়ে গিলবো কিন্তু হজম হবেনা। আমরা হজম করতে না পারলেও সস্তা নাম কামানোর উদ্দেশ্যে এদেশের কতিপয় পরিচালক একের পর এক যৌথ প্রযোজনার সিনেমা বানাবে আর কোলকাতার পরিচালকদের হুজুর হুজুর করায় রত থাকবে। চলচ্চিত্র শিল্পটা আমাদের। একে রক্ষা করার দায়িত্ব আমাদের। এমন নাম সর্বস্ব যৌথ প্রযোজনার চলচ্চিত্রের নামে ভারতীয় সিনেমা প্রদর্শন কখনোই মেনে নেয়া উচিত নয়।

Check Also

nuru miah o tar beauty driver

নুরু মিয়া ও তার বিউটি ড্রাইভার

মিডিয়া খবর :- গত ২৪ জানুয়ারি কোনও কর্তন ছাড়াই বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পায় …

tanha, shuva

ভাল থেকো চলচিত্রের পোস্টার প্রকাশ

মিডিয়া খবর:- প্রকাশ হল জাকির হোসেন রাজুর নির্মিতব্য চলচিত্রের পোস্টার। জাকির হোসেন রাজুর নির্মাণে আসছে নতুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares