Home » অনুষ্ঠান » সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে লাখো কণ্ঠে ‘আমার সোনার বাংলা’
lakho-konthe

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে লাখো কণ্ঠে ‘আমার সোনার বাংলা’

Share Button

মিডিয়া খবর:-

লাখো কণ্ঠে জাতীয় সংগীত গাওয়ার বিশ্বরেকর্ড হয়েছিল চলতি বছরের মহান স্বাধীনতা দিবসে। আবার মহান বিজয় দিবসেও লাখো কণ্ঠে উচ্চারিত হলো সেই ‘আমার সোনার বাংলা’।
১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিকেল ৪টা ৩১ মিনিটে ঐতিহাসিক এ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেই (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) যৌথ বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করেছিল পাকিস্তানি বাহিনী। সেই একই স্থান ও মুহূর্তকে স্থায়ী রূপ দিতে লাখো কণ্ঠে জাতীয় সংগীত গাওয়ার এ আয়োজন।
ঠিক ৪টা ৩১ মিনিটে মূলমঞ্চ থেকে বাদ্যযন্ত্রের সঙ্গে বেজে ওঠে ‘আমার সোনার বাংলা’। জাতি-ধর্ম-বর্ণ, শ্রেণি-পেশা-বয়স নির্বিশেষে সবাই একসঙ্গে তাতে কণ্ঠ মেলান।
‘বিজয় দিবস উদযাপন জাতীয় কমিটি’ এর আয়োজন করে। আয়োজনের পেছনের কারিগর হিসেবে ছিলেন কমিটি প্রধান ড. আবুল বারকাত এবং যুগ্ম আহ্বায়ক শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল।
আয়োজনকে ঘিরে গঠিত হয় একটি উপদেষ্টা পরিষদ, যার প্রধান ভাষা আন্দোলনের একুশের প্রভাত ফেরির চিরঅম্লান গান আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারির রচয়িতা আবদুল গাফ্?ফার চৌধুরী। এ সময় বিশিষ্ট কলামিস্ট ও সাংবাদিক আবদুল গাফ্?ফার চৌধুরীসহ সংশ্লিষ্ট সবাই মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।
জাতীয় সংগীতের সুর শুধু দেশের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেনি। একই সময়ে সারা বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা বাঙালিরাও এর সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়েছেন। উদযাপন কমিটির সদস্য সচিব ডা. ইমরান এইচ সরকার অনুষ্ঠানস্থল থেকে জানান, বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সংগঠন ও গণজাগরণ মঞ্চ এ কর্মসূচির সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেছে। দেশে দেশে তারাও নিজস্ব উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালন করছেন।
সোহরাওয়ার্দী উদ্যান থেকে গণমাধ্যমের সহায়তায় মূল অনুষ্ঠান প্রচারের মাধ্যমে দেশে-বিদেশে সবাই জাতীয় সংগীতে কণ্ঠ মেলায় বলে জানান ইমরান এইচ সরকার।  
জাতীয় সংগীতের পর মুক্তিযুদ্ধের হারানো মূল্যবোধ ফিরিয়ে আনতে আগামীর বাংলাদেশের শপথ পাঠ করান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি’ গানের গীতিকার আবদুল গাফ্?ফার চৌধুরী। এ সময় সমবেত কণ্ঠে ‘জয় বাংলা’ সেøাগান ওঠে।
এর আগে বেলা সোয়া ১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন।
সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নানা অনুষ্ঠানের মধ্যে ছিল সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ‘আমাদের সংস্কৃতি’, স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রের গায়ক-গায়িকাদের কণ্ঠে ‘মুক্তিযুদ্ধের গান’, ‘বিজয় আতশ সজ্জা’ ও সর্বশেষ বিজয় মঞ্চে তারকা ব্যান্ডদলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় ‘কনসার্ট ফর ফ্রিডম’।

Check Also

bengal-classical-fest

শাস্ত্রীয়সঙ্গীত অনুষ্ঠান সূচি চতুর্থ দিন ২৭ নভেম্বর

মিডিয়া খবর :- দলীয় কত্থক নৃত্য : মুনমুন আহমেদ ও তার দল রেওয়াজ  তবলা : …

bengal-classical-utsav

শুরু হচ্ছে উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসব

মিডিয়া খবর:- আজ থেকে শুরু হচ্ছে ‘বেঙ্গল উচ্চাঙ্গসংগীত উৎসব ২০১৬’। পঞ্চমবারের মতো আয়োজিত হতে যাচ্ছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares