Home » নিউজ » মিম মানতাসা নতুন লাক্স সুপারস্টার
meem mantasa

মিম মানতাসা নতুন লাক্স সুপারস্টার

মিডিয়া খবর:-

শুক্রবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের হল অব ফেমে আলোর রোশনাই তারার আলোয় আলোকিত পুরো মিলনায়তন। প্রায় দেড় ঘণ্টার এই অনুষ্ঠানের একদম শেষে জানা গেল এবার ‘লাক্স সুপারস্টার’ হয়েছেন মিম মানতাসা। আর প্রথম রানারআপ হয়েছেন সারওয়াত আজাদ ও দ্বিতীয় রানারআপ সামিয়া অথৈ।

‘লাক্স সুপারস্টার’ মিম মানতাসা পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন পাঁচ লাখ টাকা আর একটি নতুন গাড়ি। প্রথম রানারআপ সারওয়াত আজাদ পেয়েছেন চার লাখ টাকা এবং দ্বিতীয় রানারআপ সামিয়া অথৈ তিন লাখ টাকা। বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে ‘লাক্স সুপারস্টার ২০১৮’ অনুষ্ঠান। ছবি: প্রথম আলোদেন ইউনিলিভারের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেদার লেলে এবং চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর।

পাবনার মেয়ে মিম মানতাসা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের ছাত্রী।

পুরস্কার পাওয়ার পর গণমাধ্যমে নিজের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘এবারই প্রথম আমি কোনো প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছি। কিছু একটা করব, এমন স্বপ্ন নিয়েই অংশ নিয়েছিলাম। কিন্তু চ্যাম্পিয়ন হব, এটা কখনো ভাবিনি। এই অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।’

 

গ্র্যান্ডফিনালেতে নিয়মিত তিন বিচারকের পাশাপাশি অতিথি বিচারক ছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, অভিনয়শিল্পী আলী যাকের ও রুমানা রশিদ ইশিতা। লাক্স সুপারস্টারের নাম ঘোষণার আগে তিনটি বিশেষ পুরস্কার দেওয়া হয়। এগুলো হচ্ছে মোস্ট কনফিডেন্ট অ্যাওয়ার্ড পূজা, মোস্ট এন্টারটেইনিং অ্যাওয়ার্ড তাইপা, মোস্ট স্টাইলিশ অ্যাওয়ার্ড ইশরাত।

গ্র্যান্ডফিনালে অনুষ্ঠানে সেরা পাঁচ প্রতিযোগী। ছবি: প্রথম আলোলাক্স সুপারস্টার প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ডফিনালেতে তারকাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফেরদৌস, পূর্ণিমা, মাহি, বাপ্পী চৌধুরী, আবিদা সুলতানা, ওমর সানী, সারা যাকের, শান্তা ইসলাম, মুনিরা ইউসুফ মেমী প্রমুখ।

 কয়েক দিন ধরে শোবিজের নানা ঘরোয়া আয়োজনে একটাই প্রশ্ন ছিল, কে হবেন ‘চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপারস্টার ২০১৮’? কে হতে চলছেন মিম, মেহজাবিন, মমদের যোগ্য উত্তরসূরি?

প্রতিযোগিতার তিন বিচারক আরিফিন শুভ, মৌ আর তাহসানের পরিবেশনা। ছবি: প্রথম আলোআজ শুক্রবার সন্ধ্যায় গ্র্যান্ডফিনালে অনুষ্ঠানে সেরা পাঁচ প্রতিযোগী সামিয়া অথৈ, মিম মানতাসা, সারওয়াত আজাদ, ইশরাত জাহিন ও নাবিলা আফরোজের পরিবেশনার পর বিচারকেরা নম্বর দিতে শুরু করেন।

প্রতিভা, আত্মবিশ্বাস, দৃঢ়তা, পরিশ্রম ও প্রত্যয়—সবকিছু নিয়েই একজন নারী। এই ভাবনা নিয়ে এ বছর ৩ জানুয়ারি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে প্রতিযোগিতার নবম আসর। সারা দেশ থেকে অংশ নেওয়া ১২ হাজার প্রতিযোগীর মধ্য থেকে পর্যায়ক্রমে গ্র্যান্ডফিনালের জন্য বাছাই করে নেওয়া হয় সামিয়া অথৈ, মিম মানতাসা, সারওয়াত আজাদ, ইশরাত জাহিন ও নাবিলা আফরোজকে। গত পাঁচ মাসে ফটোশুট, অভিনয়, নাচ, মডেলিংসহ বিভিন্ন টাস্কের মাধ্যমে প্রতিযোগীদের ভেতর থেকে বের করে আনা হয় তাঁদের অদেখা প্রতিভাগুলো।

 

আরও সংবাদ

Check Also

youth bangla cultural forum

ইয়ূথ বাংলা কালচারাল ফোরামের আত্মপ্রকাশ

মিডিয়া খবর :- নতুন একটি সংগঠন আত্বপ্রকাশ করল সম্প্রতি। শিল্পী-কুশলীদের এ সংগঠনের নাম ইয়ূথ বাংলা কালচারাল ফোরাম …

আকাশ কালো মেঘের ডমরু

মিডিয়া খবর :- মেঘের ডমরু ঘন বাজে বিজরি চমকায় আমার মন ছায় মনের ময়ূরী যেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *