Home » টেলিভিশন চ্যানেল » বিভিন্ন চ্যানেলে বিরতিহীন অনুষ্ঠান
tv chanel

বিভিন্ন চ্যানেলে বিরতিহীন অনুষ্ঠান

মিডিয়া খবর:-

অনুষ্ঠানের থেকে বিজ্ঞাপনের বহর বেশি। দর্শক অতিষ্ঠ বিজ্ঞাপন যন্ত্রণায়। ঈদের সময়তো কথাই নেই। ‘বিজ্ঞাপন বিড়ম্বনা’ মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। এই পরিস্থিতির বাইরে প্রশংসনীয় উদ্যোগ নিয়ে কিছু চ্যানেল বিরতিহীন অনুষ্ঠান প্রচার করছে।

২০১২ সালে এনটিভি প্রথম ঈদে বিরতিহীন অনুষ্ঠান প্রচার শুরু করে। এরপর এ যাত্রায় যুক্ত হয় বাংলাভিশন। কিন্তু গত রোজার ঈদ থেকে বাংলাভিশন এ যাত্রা থেকে ঝরে যায়। একই সঙ্গে যাত্রায় যুক্ত হয় আরটিভি। আর এবারের ঈদে যুক্ত হচ্ছে গাজী টিভি। তবে গাজী টিভি অতীতের উদ্যোগকেও ছাড়িয়ে গিয়েছে। কারণ তারা পুরো অনুষ্ঠানই বিজ্ঞাপন বিরতি ছাড়া প্রচার করছে। আর তাদের এই উদ্যোগের নাম দিয়েছে ‘ব্রেক ফ্রি ঈদ ফেস্ট’।

সম্প্রতি সংবাদ সম্মেলন করে পুরো আয়োজন তুলে ধরেন চ্যানেলটির উপদেষ্টা মুস্তাফিজুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন চ্যানেলের ভাইস চেয়ারম্যান গাজী গোলাম আশরিয়া এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমান আশরাফ ফায়েজ। তারা জানান, নয় মাস দর্শকদের মধ্যে জরিপ চালিয়ে বিজ্ঞাপন বিরতিহীন অনুষ্ঠান দেখানোর এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে জিটিভি। আমান আশরাফ ফায়েজ বলেন, ‘আমরা দর্শকের কথা সবার আগে ভাবছি। দর্শকই আমাদের চ্যানেলের প্রাণ। তাই তারা যেভাবে জিটিভিকে দেখতে চায়, আমরা সেভাবেই অনুষ্ঠান পরিকল্পনা করি।’ 

জিটিভি বিরতিহীন অনুষ্ঠানের ডালা সাজিয়েছে এয়ারটেলের আলোচিত ৭ টেলিফিল্ম, ১৪টি নাটক, ২টি ধারাবাহিক এবং ভিন্ন স্বাদের নানা অনুষ্ঠানের মাধ্যমে।

এদিকে বাংলাদেশে বিরতিহীন অনুষ্ঠান প্রচারের ধারা প্রবর্তনকারী চ্যানেল এনটিভিও প্রতিবারের মতো থাকছে অপরিবর্তিত। তারা এবারও ৭টি নাটক প্রচার করছে। বিরতিহীন অনুষ্ঠান প্রচারের উদ্যোগ গ্রহণকারী এনটিভির সেলস এবং মার্কেটিং বিভাগের প্রধান রঞ্জন কুমার দত্ত বলেন, ‘এনটিভি সবসময় নতুনত্বে বিশ্বাসী। আমরা নতুন নতুন অনেককিছু করার চেষ্টা করেছি। বিরতিহীন অনুষ্ঠান প্রচারের উদ্যোগটিও তারই অংশ। দর্শকের কথা ভেবেই আমরা এ ধারা অব্যাহত রেখেছি। দেখে ভালো লাগছে যে, অন্যরাও আমাদের দেখানো পথে এসেছে। এতে চ্যানেলগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতা হলেও দর্শক উপকৃত হচ্ছে।’

বিরতিহীন ধারায় গতবার যুক্ত হয়ে আরটিভি প্রচার করে পাঁচটি নাটক। এবার তারা সেই পরিসর আরও বৃদ্ধি করেছে। এবার ২টি ধারাবাহিক এবং ১২টি নাটক প্রচার করবে চ্যানেলটি। আরটিভির অনুষ্ঠান প্রধান দেওয়ান শামসুর রকিব বলেন, ‘ঈদ উৎসবে দর্শক একটু শান্তিতে অনুষ্ঠান দেখতে চায়। তাই আমরা চেষ্টা করছি তাদের মনের আশা পূরণ করতে।’

বাংলাভিশন বিরতিহীন অনুষ্ঠানের স্রোত থেকে সরে এসেছে। গত ঈদ থেকে তারা বিরতিহীন অনুষ্ঠান প্রচার করছে না। আর এতে বাংলাভিশনের নিয়মিত দর্শকও কিছুটা হতাশ। এ বিষয়ে বাংলাভিশনের অনুষ্ঠান ব্যবস্থাপক তারেক আখন্দ বলেন, ‘একেক সময় একেক ধরনের পরিকল্পনা থাকে আমাদের। কিন্তু সবসময়ই দর্শকের চিন্তা মাথায় রেখেই সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকি আমরা। বিরতিহীন নয় বলে দর্শক আমাদের অনুষ্ঠান দেখবে না- আমরা এটা মনে করি না। দর্শক বাংলাভিশনের সঙ্গেই আছে। আমাদের জনপ্রিয় অনুষ্ঠানই তার প্রমাণ’।

এনটিভি, আরটিভি এবং জিটিভির বিরতিহীন অনুষ্ঠান প্রচারের উদ্যোগ প্রশংসিত হচ্ছে বিভিন্ন মহলে।

 

Check Also

এনটিভির যুগপূর্তি

মিডিয়া খবর:- খুব ঢিলেঢালাভাবে যুগপুর্তি অনুষ্ঠান করলো এনটিভি। সময়ের সাথে আগামীর পথে’- স্লোগান নিয়ে ২০০৩ …

চতুর্থ বর্ষে পা রাখল একাত্তর টেলিভিশন

মিডিয়া খবর:- সম্প্রচারের তিন বছর পূর্ণ করল দেশের জনপ্রিয় সংবাদভিত্তিক টিভি চ্যানেল একাত্তর। আজ পা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *