Home » খেলা » জার্মানির করুণ বিদায়
kim

জার্মানির করুণ বিদায়

মিডিয়া খবর :-

জয় ছাড়া কোনো ছিল না জার্মানির, পারলেন না ডিফেন্ডিং বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। যোগ করা সময়ে ২ গোল হজম করে বিদায় নিলেন তারা। এ করুণ ম্যাচে ২-০ গোলের ঐতিহাসিক জয় পেয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া। আগের ২ ম্যাচে হারলেও ফুটবল পরাশক্তিকে পরাজিত করে বড় ধরনের আত্মবিশ্বাস নিয়ে দেশে ফিরছেন কোরিয়ানরা।

কাউন্টার অ্যাটাকে ১৯ মিনিটে প্রথম সুযোগ পায় দক্ষিণ কোরিয়া। ফ্রি কিক থেকে দুর্দান্ত শট নেন জাং উ ইয়ং। প্রথম দফায় তা রুখতে পারেননি গোলরক্ষক ম্যানুয়েল নুয়্যার, হাত থেকে ফসকে যায় বল। তা থেকে ফিরতি শট নেন সন হিউং মিন। এবার লুফে নেন স্পাইডারম্যান। পরক্ষণেই কর্নার কিক থেকে ভেসে আসা বলে বজ্রগতির শট নেন সন হিউং। তবে তা বারের ওপর দিয়ে চলে যায়। এরপর আক্রমণ পাল্টা আক্রমণে এগিয়ে চলে খেলা। তবে গোলমুখ খুলতে পারেনি কেউ। ফলে গোলশূন্য ড্র নিয়ে বিরতিতে যায় দুদল।

বিরতির পর গোল পেতে মরিয়া হয়ে পড়ে জার্মানি। ঘন ঘন আক্রমণে উঠেন চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এতে খেলা ওপেন হয়ে যায়। কাউন্টার অ্যাটাকে ওঠার সুযোগ পায় দক্ষিণ কোরিয়ায়ও। তবে বেশিরভাগ সুযোগ পেয়েছেন জার্মানরা। কিন্তু ভালো ফিনিশারের অভাবে গোল পাননি তারা। পাল্টা আক্রমণে বেশ ক’টি সুযোগ পায় দক্ষিণ কোরিয়া। তবে একই সমস্যার কারণে ৯০ মিনিট পর্যন্ত গোল পাননি কোরিয়ানরাও। এতে খেলা গোলশূন্য ড্রতে শেষ হবে বলে মনে হচ্ছিল।

তবে নাটকের তখনো ঢের বাকি ছিল। ইনজুরি টাইমের দ্বিতীয় মিনিটে জার্মানির জালে বল জড়ান কিম ইয়ং গুন। এতে রাশিয়া বিশ্বকাপ থেকে মেসুত ওজিলদের বিদায় প্রায় নিশ্চিত হয়ে যায়। পরক্ষণেই ঠিকানায় বল পাঠিয়ে তাদের সলিল সমাধি ঘটান সন হিউং–মিন।

বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকে বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের বিদায় যেন নিয়মে পরিণত হয়েছে। ২০১০ বিশ্ব আসরের গ্রুপপর্ব থেকে বিদায় নেন ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ইতালি। ২০১৪ সালে বিদায় ঘণ্টা বাজে স্পেনের। এবারো ব্যত্যয় ঘটল না। প্রথম পর্ব থেকেই বিদায় নিলেন জার্মানরা।

 

Check Also

মাশরাফির রংপুর চ্যাম্পিয়ন

মিডিয়া খবর :- বিপিএলের সবচেয়ে সফলতম অধিনায়কের হাত ধরে এবার শিরোপার স্বাদ পেল রংপুর। ক্রিস গেইল …

বাংলাদেশ-ভারতের লড়াইগুলো

মিডিয়া খবর:- ১৭ মার্চ ২০০৭ এ পোর্ট অফ স্পেনে ভারতকে বাংলাদেশ পরাজিত করায়  দিন বদলাতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *