Home » চলচ্চিত্র » একজন চিত্র সাংবাদিকের চোখে ঢাকা এ্যাটাক

একজন চিত্র সাংবাদিকের চোখে ঢাকা এ্যাটাক

মিডিয়া খবর :-  

আয়নাবাজির পর, যে সিনেমাটি সুধীমহলে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হচ্ছে তা ঢাকা এ্যাটাক। ছবিটির গল্প, চিত্রায়ন, আবহ সংগীত, টাইটেল, গ্রাফিক্স সবকিছুতেই পরিচালকের মুন্সিয়ানার ছাপ স্পষ্ট। পুলিশবাহিনীর যারা অভিনয় করেছেন তাদের সাধুবাদ না দিয়ে পারছি না।অভিনয় চর্চা না করেও তারা এত ভালো অভিনয় কিভাবে করলো ভেবে অবাক হই। সেই সাথে শতাব্দী ওয়াদুদ, এ,বি,এম সুমন, তাসকিন এবং মাহিয়া মাহির অভিনয় মনে রাখার মত। তবে আরেফিন শুভকে কেন যেন চরিত্রের ভেতরে ঢুকতে পেরেছে বলে মনে হয়নি। এর থেকে আয়নাবাজিতে তার এন্ট্রি বেশ চমকপ্রদ ছিলো।
অনেক নামকরা সিনেমাতেও ছোট খাট ত্রুটি বিচ্যুতি থাকে। ঢাকা এ্যাটাকও এর ব্যাতিক্রম নয়।
চিত্র সাংবাদিক 
একটি নিউজ চ্যানেলে গুরুত্ব বিবেচনায় ৮০% ফুটেজ এবং ২০% রিপোর্টিং ও অন্যান্য। সুতরাং মেধাসম্পন্ন না হলে কেউ একটি বেসরকারি চ্যানেলে এই পেশায় টিকে থাকতে পারে না। দুঃখের বিষয় সিনেমাটিতে একজন চিত্র সাংবাদিককে “ভাড়” হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে। যার বাস্তব কোন ভিত্তি নাই।
রিপোর্টারের পেশাদারীত্বর অভাব
পেশাদারীত্বের দৃষ্টান্ত হিসেবে একজন সোয়াট কর্মকর্তা তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে রেখে কিভাবে দেশের জন্য ত্যাগ স্বীকার করছেন সেটা মানবিক ভাবে ফুটে উঠেছে, কিন্তু একজন ডেডিকেটেড সাংবাদিক কিভাবে মাইক্রোফোন সহকর্মীর হাতে তুলে দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করতে পারেন, বোধগম্য নয়। একজন সোর্সের সাথে দেখা করতে যেয়ে নায়িকা বিপদের সম্মুখীন হন, নায়ক এসে তাকে বিপদমুক্ত করেন। তখন নায়িকার তার ক্যারিয়ার নিয়ে যে সংলাপটি দেন সেটি নিন্মরুপ – আমার জীবনের চেয়েও আমার লক্ষ্যর মূল্য অনেক বেশি। আমি চাই আমার বাবার মত আমিও একজন নামকরা ক্রাইম রিপোর্টার হতে। অথচ সিনেমার শেষ ভাগে, নায়িকাকে দেখা যায় তার ইউনিট রেখে প্রেমিকের সাথে গাড়ীতে চলে যেতে। বাস্তবে কি কখনো এমন হয় ? পুলিশ যেখানে রাত জাগে, সাংবাদিকদেরও সেখানে রাত জাগতে হয়। কিছুদিন পূর্বে একজন আন্তর্জাতিক সংবাদ উপস্থাপিকাকে তার স্বামীর মৃত্যু সংবাদ পাঠ করতে দেখা যায়, যেটা পেশাগত দৃষ্টান্ত হিসেবে আন্তর্জাতিক মহলে বিবেচ্য। সাংবাদিকতার মত মহৎ পেশাকে এখানে অবহেলা করা হয়েছে বলে ব্যাক্তিগত ভাবে আমার মনে হয়েছে।
শেষ কথা – বাহুবলীর মত সুপারহিট সিনেমাতেও দুই শতর বেশি ভুল ধরা পড়েছে। প্রতিটি সিনেমাতেই প্রশংসা ও সমালোচনা দুটিই সত্য। ব্যাক্তিগত কাউকে আহত করা আমার উদ্দেশ্য নয়। ঢাকা এ্যাটাক টিমের প্রতি শুভ কামনা রইলো।
 
আল মাসুম সবুজ (চিত্র সাংবাদিক)

Check Also

আসছে ফেরদৌস-মৌসুমীর পোস্টমাস্টার ৭১

মিডিয়া খবর :- অবশেষে মুক্তি পেতে চলেছে নায়ক ফেরদৌস প্রযোজিত চলচ্চিত্র ‘পোস্টমাস্টার ৭১’। এ চলচ্চিত্রে ফেরদৌসের সাথে …

gonoadalot

প্রামাণ্যচিত্র গণ আদালত সেন্সর পার করল

মিডিয়া খবর :- বিশিষ্ট নির্মাতা কাওসার চৌধুরীর প্রামাণ্যচিত্র ‘গণ আদালত’-এর সেন্সর হয়ে গেলো। কোন রকমের ছুরি-কাঁচি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *